মেইন ম্যেনু

নিষেধাজ্ঞার পরও প্রসূন আজাদের বেফাঁস মন্তব্য

3

নির্মাতা-অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচীর একটি নাটকের সিডিউল ফাঁসিয়ে বেকায়দায় পড়েছেন লাক্স তারকা প্রসূন আজাদ। সিডিউল ফাঁসানোর পর প্রসূন ও রোকেয়া প্রাচী নিজেদের মধ্যে এক প্রকার কাদা ছোঁড়াছুড়ি করেন গত সপ্তাহ ধরে। তারা একে অন্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিতে শুরু করেন।

এরপর বাধ্য হয়ে রোকেয়া প্রাচী ডিরেক্টরস গিল্ড, টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ও অভিনয়শিল্পী সংঘ- নাটকের এই তিন সংগঠনের কাছে অভিনেত্রী প্রসূন আজাদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন।

সংগঠনগুলো থেকে প্রসূন আজাদকে তিন দিনের সময় দিয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। সেই সময় ২৮ অক্টোবর শেষ হলেও এর মধ্যে কোনো যোগাযোগ করেননি প্রসূন। উল্টো আবারো তার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন, যেটি আপত্তিকর।

তাই সবকিছু বিবেচনা করে প্রসূন আজাদকে টিভি পর্দার তিন সংগঠন ডিরেক্টরস গিল্ডস, টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন এবং অভিনয় শিল্পী সংগঠন আগামী এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে।

এদিকে নিষেধাজ্ঞার কথা শুনেও বেফাঁস মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকেননি প্রসূন। তিনি বিষয়টি নিয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন। এ ব্যাপারে প্রসূন বলেন, ডিরেক্টরস গিল্ডের কেউ আমার মতে ভালো নির্মাতা নন।

সেখানে অনেকে অভিনয়শিল্পী হিসেবে ভালো আছেন। যারা নির্মাণও করেন। তবে আমি মনে করি নির্মাতা হিসেবে কেউ ভালো নন। তাই ওই সংগঠনটি আমাকে নিয়ে এক বছর কাজ করবে কি করবে না এ নিয়ে আমার কোনো মাথাব্যথা নেই। আর ডিরেক্টরস গিল্ডকে আমি কোনো গুরুত্ব দিচ্ছি না। আরেকটা কথা হলো, আমি এই সংগঠনের কোনো বেতনভুক্ত কর্মী নই। আমাকে তারা নিষিদ্ধ করলে কিছু আসবে যাবে না।