মেইন ম্যেনু

নেইমারকে ঘিরে ঘনাচ্ছে রহস্য, দু’ বছরের জেল হতে পারে! এমন কী করলেন তিনি?

neymar mama

প্রথমে লিওনেল মেসি। পরে নেমার।

পরিণতি দু’ জনেরই প্রায় এক। মেসির বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল কর ফাঁকির। নেমারের বিরুদ্ধেও অনেকটা তাই। আর সেই কারণেই দু’ বছরের জন্য ব্রাজিলীয় তারকা ফুটবলারকে জেলে যেতে হতে পারে। এমনটাই জানিয়েছে স্প্যানিশ আদালত। সেই সঙ্গে বিপুল পরিমাণ টাকা জরিমানা দিতে হবে নেমারকে। ২০১৩-য় স্যান্টোস থোকে বার্সেলোনায় যোগ দিয়েছিলেন ব্রাজিলের এই তারকা ফুটবলার। আর বার্সায় যোগ দেওয়ার পরেই নেমারের বিরুদ্ধে আর্তিক জালিয়াতির অভিযোগ উঠে আসে।

স্পেনের আদালতে নেমারের বিরুদ্ধে মামলা চলছিল আগে থেকেই। নেমারের পাশাপাশি আর্থিক কারচুপির অভিযোগ আনা হয়েছিল বার্সেলোনার প্রাক্তন ও বর্তমান সভাপতি, নেমারের বাবা ও স্যান্টোসের দুই পরিচালকের বিরুদ্ধে। ব্রাজিলের একটি প্রতিষ্ঠান ডিআইএস-এর দায়ের করা এই মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, কারচুপির মাধ্যমে তাদের আর্থিকভাবে বঞ্চিত করা হয়েছে। স্যান্টোস ও বার্সার পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, নেমারকে দলে নেওয়ার জন্য খরচ হয়েছে ৫৭.১ মিলিয়ন ইউরো। এর মধ্যে ৪০ মিলিয়নই গিয়েছে নেমারের বাবার মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের কাছে। সেখানে স্যান্টোস পেয়েছে ১৭.১ মিলিয়ন ইউরো। নেমারের উপরে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ডিআইএস এর মধ্যে পেয়েছে মাত্র ৬.৮ মিলিয়ন ইউরো। কিন্তু নেমারকে দলে পেতে বার্সেলোনাকে আরও বেশি অর্থ খরচ করতে হয়েছে বলে মনে করেছে স্পেনের আদালত।