মেইন ম্যেনু

নেশার টাকা না দেওয়ায় বাবাকে কোপাল নেশাখোর ছেলে!

নেশায় টান পড়েছে কিন্তু পকেটে টাকা নেই। টাকা চেয়ে না পেয়ে কোপালো নিজের বাবাকে। দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে নেশাখোর ছেলের দায়ের কোপে গুরুতর আহত এখন বাবা রফিকুল ইসলাম মঞ্জু (৬৫)।

ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার ২৬শে অক্টোবর বিকেলে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী পৌর এলাকার স্বজনপুকুর গ্রামে। বর্তমানে তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঘটনাটি এই মুহুর্তে ফুলবাড়ীতে ‘টক অব দ্যা টাউনে’ পরিণত হয়েছে।

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে নেশাখোর ছেলের দায়ের কোপে আহত রফিকুল ইসলাম মঞ্জু স্বজনপুকুর গ্রামের মৃত আজগর আলীর ছেলে ও জনতা ব্যাংক লিমিটেড এর অবসর প্রাপ্ত কর্মকর্তা। এই ঘটনার পর থেকে হামলাকারী নেশাখোর যুবক রেজানুজ্জামান সোহাগ (৪০) পলাতক রয়েছে।

হামলার শিকার রফিকুল ইসলাম মঞ্জুর ছোট ছেলে রায়হানুর জানান, তার বড়ভাই (হামলাকারী) রেজানুজ্জামান সোহাগ একজন নেশাখোর মাতাল, ঘটনার দিন সকাল থেকে তার নেশার জন্য টাকার দাবী করে, কিন্তু টাকা না পাওয়ায়, সে বাড়ীর লোক জনকে গালাগালি করে বাড়ী থেকে বের হয়। এর পর বুধবার বিকেলে তার বাবা ফুলবাড়ী বাজারে যাওয়ার উদ্দেশে মটর সাইকেল নিয়ে বাড়ী থেকে বের হওয়ার সময় বাড়ীর দরজায় সে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা করে এবং শরীরের বিভিন্ন অংশে কোপায়। এতে তার বাবার শরীরের বিভিন্ন অংশ কেটে যায় ও ডান হাতের দুটি আঙ্গুল কাটা যায়। এসময় তার বাবার আর্তচিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে আসলে সে তার ব্যবহৃত দা ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তার বাবাকে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আসলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।

ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ঘটনার দিন সন্ধায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রাথমিক আলামত সংগ্রহ করেছেন বলে জানান থানার ওসি মোকসেদ আলী। তিনি আরো বলেন, আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কেউ এ ঘটনায় কোন প্রকার অভিযোগ করতে থানায় আসেনি।