মেইন ম্যেনু

নোট বাতিলের বিড়ম্বনায় সন্তান হারালেন বাবা-মা

ভারতে নোট বাতিলের বিড়ম্বনায় সন্তান হারালেন অসহায় বাবা-মা। জগদিশ এবং কিরণ শর্মা নামের এক দম্পতি তাদের সদ্যজাত সন্তানকে নিয়ে হাসপাতালে গিয়েছিলেন। কিন্তু হাসপাতালে ওই শিশুটিকে ভর্তি করাতে পারেননি তারা।

ওই দম্পতি জানিয়েছেন, তাদের কাছে যে ৫০০ এবং ১০০০ টাকার নোট ছিল তা ইতোমধ্যেই বাতিল করেছে সরকার। তাই তাদের কাছে থাকা টাকা দিয়ে আদরের সন্তানকে হাসপাতালে ভর্তি করানো সম্ভব হয়নি।

বুধবার বাড়িতেই সন্তান প্রসব করেন কিরণ। কিন্তু শিশুটির শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল না বলে তাকে জেভান জিয়ত হাসপাতাল অ্যান্ড নার্সিং হোমে নিয়ে যান জগদিশ এবং কিরণ। সেখানে ছয় মাস ধরে কিরণের চেকআপ করা হচ্ছিল।

জগদিশ জানান, হাসপাতালে তার সন্তানকে ভর্তি করাতে ৬ হাজার টাকার প্রয়োজন ছিল। কিন্তু তাদের কাছে ৫০০ এবং ১০০০ টাকার নোট ছিল। এ টাকার জন্য হাসপাতাল তাদের ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘আমি বার বার তাদের হাতে পায়ে ধরে অনুরোধ করেছি। আমি তাদের এও বলেছি যে, সরকার কিছুদিন পর্যন্ত হাসপাতালগুলো ৫০০ এবং ১০০০ টাকা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে। কিন্তু তারা আমার কোনো কথাই শোনেনি। তারা আমার বাচ্চাকে ভর্তি করেনি।’

শিশুটিকে অন্য হাসপাতালেও ভর্তি করতে পারেননি তারা। পরে বৃহস্পতিবার প্রচণ্ড জ্বরে শিশুটির মৃত্যু হয়। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ ধরনের ঘটনা অস্বীকার করেছে। তাদের দাবি, এমন কোনো ঘটনাই ঘটেনি।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ৫০০ এবং ১০০০ টাকার নোট বাতিলের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।