মেইন ম্যেনু

পা দিয়ে লিখে জেএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে ফজলু

sirajgong

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলায় ফজলুর রহমান ফজলু নামের এক প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী পা দিয়ে জেএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। চলতি বছরের শুরু হওয়া জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা উপজেলা সদরে শ্যাম কিশোর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছে সে।

জন্মগতভাবে দুটি হাত ও একটি পা নেই ফজলুর। বেলকুচি উপজেলার ধুকুরিয়াবেড়া ইউনিয়নের মিটুয়ানী উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র।

ফজলু ওই ইউনিয়নের চক গোপালপুর গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে। তার ছোট বোন আসমা খাতুন এ বছর একই সাথে জেএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন। ছোটবোনই স্কুলে যাওয়া-আসায় প্রতিবন্ধী ভাইকে সাহায্য করত।

ফজলুর পরিবারে বাবা-মা, দুই ভাই ও পাঁচ বোন। এরইমধ্যে তিন বোনের বিয়ে হয়েছে। বড় ভাই তাঁতের কাজ করে সংসার চালায়। বাবা-মা দিনমজুরি করেন।

ফজলুর মা সারা খাতুন জানান, ফজলুর জন্ম ২০০০ সালে। আমরা স্বামী-স্ত্রী দুইজনেই লেখাপড়া জানি না। ছোট মেয়ে আসমা না থাকলে ফজলুকে লেখাপড়া করানো সম্ভব হতো না।

তিনি আরো জানান, অভাব অনটনের মধ্যে সন্তানদের লেখাপড়া শেখাচ্ছি। ফজলুর দু’হাত ও এক পা না থাকলেও অনেক কাজ নিজেই করতে পারে।

ফজলুর বাবা সাহেব আলী বলেন, আমি গরিব। আমার একটাই আশা প্রতিবন্ধী ছেলে ফজলু লেখাপড়া করে বড় হলে সরকার যেন একটা চাকরির ব্যবস্থা করে।

বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুল হাসান জানান, পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেছি। ফজলুর লেখাপড়ার প্রতি আগ্রহ দেখে বিস্মিত হয়েছি। তাকে আলাদা করে পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছিল কিন্তু ফজলু তা করেনি। সে তার নির্ধারিত স্থানেই পরীক্ষা দিচ্ছে।

ফজলুকে সরকারিভাবে অনুদান দেওয়া হবে বলে জানান নির্বাহী অফিসার।