মেইন ম্যেনু

পুরনো কারাগারে বঙ্গবন্ধু ও চার নেতার আলোকচিত্র প্রদর্শনী

dhaka-central-jail-120161024171414

ঢাকা কেন্দ্রীয় পুরনো কারাগারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতার দুর্লভ আলোকচিত্র নিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। ‘সংগ্রামী জীবনগাঁথা’ শিরোনামে এক ব্যতিক্রমধর্মী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর এই আয়োজন করছে কারা কর্তৃপক্ষ।

আগামী ১ থেকে ৫ নভেম্বর পাঁচ দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী চলবে। এর উদ্বোধন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। প্রদর্শনীতে মোট ৭৫টি আলোকচিত্র প্রদর্শিত হবে। পাশাপাশি ৩ নভেম্বর জাতীয় চার নেতার হত্যা দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভারও প্রস্তুতি নিচ্ছেন কারা কর্মকর্তারা।

কারা অধিদফতরের একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেন। সোমবার এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে শীর্ষ এক কর্মকর্তা বলেন, একদল দুর্বৃত্ত ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর জাতীয় চার নেতা তৎকালীন ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নজরুল ইসলাম, সাবেক প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমেদ ও ক্যাপ্টেন (অব.) এম মনসুর আলী এবং সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ এম কামরুজ্জামানকে হত্যা করা হয়। এছাড়া ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বহু স্মৃতি রয়েছে।

চলতি বছর কারা অধিদফতর বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাতে পুরনো কারাগারের দুই জাদুঘরের পাশে এই আলোকচিত্র প্রদর্শিত হবে। কারাগারের ভেতরে হলেও উদ্বোধনের পরদিন থেকে প্রদর্শনীটি সাধারণ জনগণের দেখার জন্য খুলে দেয়া যায় কিনা তা নিয়ে চিন্তাভাবনা চলছে।

জানা গেছে, ‘জার্নি’ নামে একটি বেসরকারি সংগঠন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার আলোকচিত্রগুলো সরবরাহ ও সার্বিক অনুষ্ঠানের দায়িত্ব পালন করছে।

একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতর দৈনিক গড়ে ৭ থেকে ৮ হাজার বন্দি থাকায় ওই সময় এ ধরনের কোনো প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়নি। ৩ নভেম্বর শুধু চার নেতার পরিবারের সদস্যরা জেলখানায় আসতেন। এবারই প্রথম ঘটা করে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হবে।

সোমবার দুপুরে কারা অধিদফতরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইফতেখার উদ্দিন খান এ অনুষ্ঠানটি সম্পর্কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘বাংলাদেশ প্রিজন’ ফেসবুকে পেজে একটি পোস্ট দেন।