মেইন ম্যেনু

পুরুষ নয় যৌনসুখের জন্য মহিলারা এবার বেছে নেবে অভিনব এই সেক্স রোবোটকে!

pros-and-cons-of-sex-robots

মোটামুটি বলা যায় আগামী দশ বছরের মধ্যে আমরা সবাই রোবোট বা যন্ত্রমানবের সঙ্গে ‘লাভ মেকিং’-এ অভ্যস্ত হয়ে যাব। এমন কথাই উঠে আসছে ‘দ্য মিরর’-এর একটি প্রতিবেদনে যা ডঃ ইয়ান পিয়ারসনের একটি গবেষণার ভিত্তিতে তৈরী হয়েছে।
ভবিষ্যতকালে কেমন হবে মানুষের যৌনজীবন সেই সম্পর্কে একটি রিপোর্ট তেরী করেছেন ডঃ পিয়ারসন। যেখানে তিনি বলছেন যে অদূর ভবিষ্যতে মহিলাদের পক্ষে রোবোটের সঙ্গে রাত্রিযাপন ঠিক ততটাই স্বাভাবিক হয়ে যাবে যতটা বর্তমানে পর্ণগ্রাফি দেখা জলভাত হয়ে গেছে।

তাঁর দাবি, ২০৫০ সালের মধ্যে মানুষের জায়গা দখল করবে রোবোট, আর ব্যাপারটিকে তিনি ‘রোবোফিলিয়া’ বলে অভিহিত করেছেন।

ওই রিপোর্টে পিয়ারসন লিখছেন, “বর্তমান সময়ে অনেক মানুষেরই রোবোটের সঙ্গে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হতে আপত্তি রয়েছে, কিন্তু যখন এই যন্ত্রমানবের ‘আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্স’ উন্নততর হয়ে উঠবে ও দৃঢ় আবেগের বন্ধনে আবদ্ধ হবে, তখন মানুষের সঙ্গে দূরত্বটা ধীরে ধীরে ঘুচে যাবে।”

কিন্তু ডঃ পিয়ারসনের এই রিপোর্টে ভয় পাচ্ছে তামাম দুনিয়া, তাহলে কী মানবকেও আর দরকার পড়বে না মানবীর সেই ‘বিশেষ মূহূর্তে’র জন্য বা উল্টোটা! জীবনের মন্ত্র তাহলে যন্ত্র!