মেইন ম্যেনু

প্রচন্ড বেগ, টয়লেট করতে গিয়ে খোঁজ মিললো ৪৯ হাজার বছরের সভ্যতার!

1478365535

৪৯ হাজার বছর আগের আদিবাসী বসতির খোঁজ মিলল অস্ট্রেলিয়ায়। দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেডের উত্তরে ৩৪০ মাইল দূরে ওয়ারত্তি পাহাড়ের মাঝে এক গুহায় আদিম বসতি ছিল বলে দাবি করা হচ্ছে। খবর ইন্ডিয়া টাইমসের।

এই আবিষ্কার থেকে মনে করা হচ্ছে, প্রায় ৫০ হাজার বছর আগে অস্ট্রেলিয়ার এই এলাকাতেই বসতি গড়ে তুলেছিল মানুষ। যদিও এতদিন আর্কিওলজিস্টরা দাবি করতেন, পঞ্চাশ নয়, চল্লিশ হাজার বছর আগে বসতি গড়েছিল মানুষ। সৃষ্টি হয়েছিল সভ্যতা। কিন্তু, এই আবিষ্কারের পর অনেক ধারণায় পরিবর্তন হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

৯ বছর আগে পাহাড়ি ওই এলাকায় সার্ভে করতে বেরিয়েছিলেন অজি ক্লিফর্ড ক্যলথার্ড। কিন্তু, মাঝপথে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে গিয়েই ওই গুহা খুঁজে পান তিনি। আর এর ভিতরেই রয়েছে মানুষের বসতি গড়ে তোলার প্রমাণ। রয়েছে আদিম সভ্যতার প্রমাণ। ক্যলথার্ডের সঙ্গে ছিলেন মেলবর্নের আর্কিওলজির অধ্যাপক গাইলস হ্যাম। তিনি জানান, ‘একজন লোক গাড়ি থেকে বাথরুম খুঁজছিলেন। আর এভাবেই আবিষ্কার হয়েছে, প্রাগৈতিহাসিক সময়ের এক সভ্যতার।’

হ্যাম জানিয়েছেন, পাথর দিয়ে ঘেরা ওই জায়গার বিভিন্ন অংশে মিলেছে কালো ছাদের অস্তিত্বও। যা মানুষের বসবাসের প্রমাণ দেয়। ৯ বছর আগের সেই দিন থেকে আরও বেশি পরিমাণ প্রমাণ জোগাড় করেন হ্যাম ও ক্যলথার্ড। তাঁদের দাবি, ১৬টি স্তন্যপায়ী ও ১টি সরীসৃপের মোট ২০০ হাড়খণ্ড ওই গুহা থেকে উদ্ধার করেছেন তাঁরা। সঙ্গে রয়েছে প্রায় ৪৩০০ মানুষের হাতের কাজের প্রমাণ।

এর আগে পশ্চিম-মধ্য অস্ট্রেলিয়ার পুরিতজারায় প্রাচীনতম আদিবাসী বসতির খোঁজ মিলেছিল। যা প্রায় ৩৮ হাজার বছরের পুরোনো বলে দাবি করা হয়। কিন্তু, এই আবিষ্কারের সঙ্গে নয়া তত্ত্বের সৃষ্টি হল। প্রসঙ্গত, প্রায় ৫০ হাজার বছর আগে অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম আদিবাসী বসতি গড়ে উঠেছিল বলে মনে করা হয়।