মেইন ম্যেনু

প্রশাসনের সাড়ে ৩শ’ কর্মকর্তার পদোন্নতি চূড়ান্ত

প্রশাসনের তিনটি স্তরে সাড়ে তিন শতাধিক কর্মকর্তার পদোন্নতি চূড়ান্ত করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে অতিরিক্ত সচিব পদে ৪০ থেকে ৪৫ জন, যুগ্মসচিব পদে ১৫০ জন এবং উপসচিব পদে ১৬১ জনকে এ পদোন্নতি দেওয়া হবে। এর আগে পদোন্নতি বঞ্চিতরাও রয়েছেন এ তালিকায়। তবে এ সংখ্যা কিছু কম বা বেশি হতে পারে বলে জানা গেছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন সময় আলাদা আলাদাভাবে এসব কর্মকর্তাদের পদোন্নতির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন চূড়ান্ত অনুমোদন দেবে সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ড (এসএসবি)। বৈঠকে চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়ার পরই পদোন্নতি পাবেন এসব কর্মকর্তা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী বলেন, ‘চলতি মাসের মধ্যেই যুগ্মসচিব এবং উপসচিব পদে পদোন্নতির সিদ্ধান্তটি চূড়ান্ত হবে।’ অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির বিষয়টি চূড়ান্ত হচ্ছে কিনা-জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘হতেও পারে।’

জানা গেছে, জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) প্রতিবেদন উপেক্ষা করে ১৯৮৬ সালের ব্যাচকে এবার অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি দেওয়া হচ্ছে। স্বজনপ্রীতি ও ইচ্ছেমতো পদোন্নতি দিতেই এমনটি করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ড. কামাল আব্দুল নাসের মন্তব্য করতে চাননি।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮৬ সালের ব্যাচ থেকে অতিরিক্ত সচিব পদে ৪০ থেকে ৪৫ জন, ১১তম ব্যাচ থেকে যুগ্মসচিব পদে ২৫০ জন এবং ২১তম ব্যাচ থেকে উপসচিব পদে ১৬১ জনসহ ৩৫৬ জনকে পদোন্নতি দেওয়া হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তা জানান, বর্তমানে যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি বঞ্চিত কর্মকর্তাদের মধ্যে ১৯৮২, ১৯৮৪, ১৯৮৫ এবং ১৯৮৬ ব্যাচে ৩০০ জনের অধিক পদোন্নতি বঞ্চিত দাবিদার রয়েছেন। ১৯৮৪ ও ১৯৮৫ সালের অনেক কর্মকর্তা সচিব হলেও অনেকেই এখনও উপসচিব পদেই রয়ে গেছেন।

তবে এসব কর্মকর্তার মধ্যে বিভাগীয় মামলা কিংবা পদোন্নতির জন্য বেঞ্চমার্ক নেই বা অনিয়মের অভিযোগে পদোন্নতি হয়নি এমন কর্মকর্তার সংখ্যা প্রায় ৫০ জন।

প্রশাসনে সর্বশেষ ১৩ জানুয়ারি অতিরিক্ত সচিব পদে ৮৪ জনকে পদোন্নতি দেওয়া হয়। যুগ্মসচিব পদে গত বছর ১০ সেপ্টেম্বর ৭২ জনকে পদোন্নতি হয়েছে। পদোন্নতি বঞ্চিত কর্মকর্তাদের কথা বিবেচনা করা হচ্ছে এবার। আর উপসচিব পদে সর্বশেষ পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে গত বছর মার্চ মাসে।

গত বছর সেপ্টেম্বরে ১৯৮৬ ব্যাচের কর্মকর্তারা সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের (এসএসবি) সভাপতি ও মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের কাছে যান পদোন্নতির তদবিরে। এছাড়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, অর্থ বিভাগের সচিব মাহবুব আহমেদ এবং আইন সচিব শেখ জহিরুল হকের কাছে যান এসব কর্মকর্তারা।