মেইন ম্যেনু

প্রাণ ফেরার আশায় মৃতদেহ সংরক্ষণে ঐতিহাসিক রায়

বিরল ক্যানসারে আক্রান্ত এক কিশোরী মৃত্যুর আগ মুহূর্তে করা এক মামলায় ঐতিহাসিক রায় পেয়েছে। ১৪ বছরের মেয়েটি মৃত্যুর পর তার দেহ সংরক্ষণ করার জন্য এ মামলা করেছিল। তার ধারণা, ক্যানসারের জীবাণু শরীর থেকে ধ্বংসের পর আবার প্রাণের সঞ্চার হবে। খবর বিবিসির।

যুক্তরাজ্যের হাইকোর্ট রায় দিয়েছেন, মেয়েটির মা তার মরদেহ যা করতে চান, তা করতে দেয়া হবে। গত মাসে মারা যাওয়া ওই মেয়েটির মরদেহ এখন যুক্তরাষ্ট্রের হিমঘরে রাখা আছে।

নাম না জানা লন্ডনের বাসিন্দা ওই মেয়েটি মৃত্যুর আগ পর্যন্ত মানবদেহ সংরক্ষণের উপায় ইন্টারনেটে খোঁজ করে গেছে।

মৃত্যুর আগে বিচারকের উদ্দেশ্যে এক আবেগঘন আর্জিতে মেয়েটি জানায়, সে বহুদিন বাঁচতে চায়, তাই তাকে যেন কবর দেয়া না হয়।



« (পূর্বের সংবাদ)