মেইন ম্যেনু

প্রেমিকের বিয়েতে কনের সাজে হাজির রক্ষিতা!

রক্ষিতা বললে যে টাকা দেয়া-নেয়ার কথাটা সবার আগে মনে পড়ে, এ সম্পর্কে তেমন কিছু ছিল না। রক্ষিতা মানে এখানে একান্তভাবেই এমন এক নারী, যে জানে তার পুরুষটি তাকে বিয়ে করবে না। এবং সে একা নয়, তার মতো অনেকজনের সঙ্গেই আছে পুরুষটির সম্পর্ক!

সব জেনে সম্পর্কে এগিয়েও প্রেমিকের বিয়ের খবরে ভেঙে পড়ে ঘানার এক তরুণী। তবে শেষ পর্যন্ত সে চুপ করে থাকেনি। কান্নাকাটি করে ভারাক্রান্তও করে তোলেনি নিজের জীবন। বরং সে যা করে দেখাল, তাতে থ হয়ে গেল সকলে। বিয়ের দিন বাসরে পৌঁছে গেল কনে সেজে।

ঘানার ওই খ্রিস্টান বিবাহে রক্ষিতার কনে সেজে হাজির হওয়া ঝড় তুলেছিল! প্রথমে চমকে গিয়েছিলেন সবাই- দুজন কনের উপস্থিতি দেখে! তার পর তাঁরা দেখলেন, বর হিড়হিড় করে বাইরে টেনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে দ্বিতীয় কনেকে। এবং সে কিছুতেই যাবে না!

শেষ পর্যন্ত মেয়েটি যায়নি! বরং, এক গাল হেসে খুলে ফেলেছে ঘোমটা। তার পর একটা মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে তাদের সম্পর্কের কথা জানিয়ে দিয়েছে সবাইকে। বলার সঙ্গে সঙ্গে তাকে সহ্য করতে হয়েছে অনেক খারাপ কথা। কোনো কিছুই গায়ে না মেখে সে হাসতে হাসতে চলে গেছে বিবাহবাসর ছেড়ে। কী বলছেন? বিয়েটা শেষ পর্যন্ত হয়েছে না কি? মাফ করবেন! সে খবর এখনো আসেনি!-সংবাদ প্রতিদিন