মেইন ম্যেনু

ফাঁসিকাষ্ঠ থেকে ৩ বার বেঁচেছিলেন তিনি

ভাগ্যে যদি না থাকে লেখা মৃত্যু, তাহলে কি হবে? তাইতো একবার নয়, তিন-তিনবার চেষ্টা করেও কার্যকর করা যায়নি জন হেনরি জর্জ লির মৃত্যুদণ্ড। এজন্য পৃথিবীর বিরলতম সৌভাগ্যবানদের মধ্যে তিনিও একজন, ফাঁসির মঞ্চে নিয়েও যাকে ফাঁসিকাষ্ঠে ঝোলানো সম্ভব হয়নি। ঘটনাটি ঘটেছিল আজ থেকে প্রায় ১৩০ বছর আগে যুক্তরাজ্যে।

১৮৮৫ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি, মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের জন্য লিকে জেলখানা থেকে নিয়ে যাওয়া হলো ফাঁসির মঞ্চে। গলায় দড়িও পরানো হলো, কিন্তু দেখা গেল পায়ের নিচের যে ট্র্যাপডোর সরে ফাঁসি কার্যকর করবে, সেটা নড়ছেই না।

পরে ফাঁসির মঞ্চ থেকে লিকে জেলখানায় ফিরিয়ে নেয়া হয়। এরপর প্রকৌশলী দিয়ে পরীক্ষা হলো ট্র্যাপডোর, তখন কোনো ত্রুটি পাওয়া গেল না। এরপর আরো দুবার লিকে ফাঁসি দেয়ার চেষ্টা হয়, ফল সেই একই। লি থাকলে যেন ট্র্যাপডোরটা নিজের কাজই ভুলে যায়। অথচ অন্য সময় একেবারে স্বাভাবিক।

এ ঘটনার পর তার মৃত্যুদণ্ড বাতিল করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়। লি তখন ১৯ বছরের যুবক। ২২ বছর পর জেল থেকে মুক্তি পান তিনি। এরপর তিনি পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রে, সেখানেই তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়।