মেইন ম্যেনু

বন্ধুমহলে কেমন আপনি? জেনে নিন কুইজে

193928woman-helping-a-bulimic-fri

বন্ধুমহলে সবার সমস্যা সমাধানের ভূমিকায় কি আপনাকে দেখা যায়? যদি তাই হয়, তবে আপনি ওই বন্ধুমহলের ‘মামি’। এ নামেই ডাকা হয় যাবতীয় সমস্যার সমাধানকারীকে। মা যেমন সন্তানদের এটা-সেটা নিয়েই ব্যস্ত থাকেন, আপনিও আপনার বন্ধুদের মাঝে সেই ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। তবে আপনি আসলেই তেমন কি না, তা বুঝতে নিজের প্রশ্নগুলোর উত্তর খুঁজুন। এখানে কুইজ দেওয়া হলো।

১. বন্ধুদের কি বলেন বাড়ি পৌঁছে যেন একটা মেসেজ দেয় আপনাকে?

ক. আমি রীতিমতো তাদের বাড়ি পৌঁছে দিতে চাই। প্রায় সময়ই বলি মেসেজ দিতে।
খ. বিদায়ের সময় একবার বলি বাড়ি পৌঁছে টেক্সট দিতে।
গ. মাঝে মাঝে তারা নিজের দেখভাল ভালোই করতে পারে।

২. বন্ধুরা আপনার বাড়িতে এসেছেন থাকতে। সে সময় চিত্রটা কেমন হয়?

ক. আমার জায়গার অভাব। রেফ্রিজারেটরে খাবার কিছু আছে। বিছানাও আছে।
খ. এখানে থাকতে হলে নিজের প্রয়োজন নিজেরই মেটাতে হবে। বিছানাও তোমাদের। কিন্তু শেয়ার করবো।
গ. ড্রিংকস আর ডিনার আছে লাউঞ্জে।

৩. বন্ধুর বিচ্ছেদ ঘটেছে। কিভাবে তাকে স্বান্তনা দেন?

ক. সবাই এমন সমস্যা নিয়ে আসে। আমি তাদের সময়, স্থান ও পরামর্শ দেই।
খ. তাদের কথা শুনে সাধ্যমতো চেষ্টা করি। মন ভালো করার জন্য সব করি।
গ. আরে মন খারাপ করে বসে আছো কেন? সামনে এগোতে থাকো। এতেই তারা স্বান্তনা পায়।

৪. আপনার কাছের বন্ধুর জন্মদিন। এর জন্য কিভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছেন?

ক. বাড়িতে বানানো কেন, গ্রিটিং কার্ড, বাড়ির কিছু সজ্জা এবং উপহার সবাই নেওয়া হয়।
খ. সে অ্যাকসেরসরিজের ভক্ত। এগুলোই নিয়েছি।
গ. ওকে খাওয়াবো একদিন। উপহার কিনলে যদি পছন্দ না করে?

৫. ভ্রমণে যাবেন। কি কি সঙ্গে নেবেন?

ক. খাবার থেকে শুরু করে ক্যান্ডি এবং অ্যালার্জির ওষুধ পর্যন্ত নিয়েছি। এমন কিছু নেই যে মিস হতে পারে।
খ. ভ্রমণে টিকে থাকতে সবই নিয়েছি। তা ছাড়া বাকিটুকু সামলে নেবো।
গ. সকাল সকাল উঠে রেডি হয়ে নিই সময় থাকতে। আর কিছু কি লাগে?

৬. আপনার বন্ধু সিট বেল্ট না লাগিয়ে গাড়ি চালাচ্ছেন। আপনি কি প্রতিক্রিয়া দেখাবেন?

ক. তার এটা করার কোনো সুযোগই নেই। আমি নিজেই সিট বেল্ট বেঁধে নিই।
খ. সমস্যা নেই। আমি তাকে বলবো সিট বেল্ট লাগিয়ে নিতে। যদি সে আস্তে গাড়ি চালায় তো সমস্যা নেই।
গ. আমি এ বিষয়ে কখনো কিছু বলি না।

যদি সবগুলো প্রশ্নের জবাব ‘ক’ হয় : তাহলে আপনিই সত্যিই বন্ধুমহলের মা বনে গেছেন। পারলে আপনি তাদের পোশাক পরিয়ে দেন। তাদের কাপড় ছিঁড়ে গেলে সেলাই করে দেন। তাদের লেখাপড়ার কাজে সহায়তার করেন। কোনো পার্টিতে যাওয়ার আগে তাদের খেয়াল করেন। বন্ধুরাও যেকোনো বিষয়ে আপনার কথা আগে ভাবেন। তবে সাবধান থাকবেন। আপনি হয়তো মাঝে মাঝে একটু বেশি করে ফেলতে পারেন।

যদি সবগুলো প্রশ্নের জবাব ‘খ’ হয় : আপনি দারুণ আমুদে। বন্ধুদের প্রতি খেয়াল রাখেন। আবার এও বোঝেন তাদের কখন আলাদা সময় দিতে হবে। আপনি তাদের নিয়ে চিন্তা করেন। আপনি সবার আগে থাকতে চান না। তাদের পিছে লেগেও থাকেন না। কারণ, আপনারও এমনটা জরুরি হয়ে পড়ে।

যদি সবগুলো প্রশ্নের জবাব ‘গ’ হয় : আপনি যথেষ্ট নিজের খেয়াল রাখেন। এটা খুবই ভালো বিষয়। তবে আপনি বেশি চিন্তা করেন না। বিষয়গুলো খুব সিরিয়াসলি নেন না। আপনার কাছ থেকে বন্ধুরা সিরিয়াস কোনো বিষয়ে পরামর্শ চান না। অনেক সময় আপনার খেয়াল রাখতে হয় অন্য বন্ধুদের। তার মানে এই নয় যে, আপনি বন্ধুদের প্রতি আন্তরিক নন। বরং বিশ্বাস করেন যে, ঘটনা তার আপন গতিতেই এগোবে। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া