মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ সীমান্তে ভাসমান ফাঁড়ি বাড়াবে ভারত

বাংলাদেশের নৌসীমানায় নজরদারি বাড়াতে আরো ভাসমান সীমান্ত ফাঁড়ি বা বিওপি স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমানে সুন্দরবন সীমান্ত এলাকায় বিএসএফের তিনটি ভাসমান সীমান্ত ফাঁড়ি (বিওপি) রয়েছে। আগামী বছর বাংলাদেশ-ভারত নৌসীমানায় আরো ছয় থেকে সাতটি ভাসমান বিওপি স্থাপন করা হবে। তবে সেই সংখ্যা কত সে বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু জানায়নি বিএসএফ।

বিএসএফের সাউথ বেঙ্গল ফ্রন্টিয়ারের মহাপরিদর্শক পি এস আর আঞ্জনিয়াউলু হিন্দুস্তান টাইমসকে বলেন, ‘নৌসীমান্তে নজরদারি বাড়াতে আমরা আরো ভাসমান বিওপি স্থাপন করব।’

হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, গত ১ জুলাই রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলায় হতাহতের ঘটনা ঘটে। এর পর ভারতে জঙ্গি অনুপ্রবেশের খবর প্রকাশিত হয় বিভিন্ন দেশের গণমাধ্যমে। তখন থেকেই বাংলাদেশ-ভারত নৌসীমানায় নজরদারি আরো বাড়িয়েছে বিএসএফ।

এর আগে ২০০৮ সালে লস্কর-ই-তাইয়েবার (এলইটি) সদস্যরা নৌপথে গিয়ে মুম্বাইয়ে তাঁজ হোটেলে হামলা চালায়। ওই হামলার ঘটনার পর সমুদ্র ও নদী পথে নজরদারি বাড়িয়েছিল ভারত।