মেইন ম্যেনু

বাবা-মা দয়া করলেই বাড়িতে থাকতে পারবে ছেলে, বলছে আদালত

বিবাহিত হোক বা না হোক, ১৮ পার হলেই ছেলের কোনও অধিকার নেই বাবা-মা’র সঙ্গে থাকার। যাঁরা থাকেন, তাঁরা স্রেফ বাবা-মা’র দয়ার কারণেই থাকতে পারেন। বাবা-মা চাইলেই, তাঁদের সন্তানকে বের করে দিতে পারেন তাঁদের বাড়ি থেকে। সম্প্রতি একটি রায়ে এমনটাই জানানো হল দিল্লি হাইকোর্টের পক্ষ থেকে।

বিচারপতি প্রতিভা রানি একটি মামলার রায় দিতে গিয়ে জানান, শুধু ভালবাসা এবং সম্পর্কের জন্যই কোনও বাবা-মা, তাঁর সন্তানকে আগলে রাখেন। এর অর্থ এটা নয় যে সারা জীবন সেই বোঝা বাবা-মা’কে বয়ে বেড়াতে হবে।

সম্প্রতি সম্পত্তি সংক্রান্ত একটি মামলা নিয়ে নিম্ন আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন এক প্রবীণ দম্পতি। বাবা-মা নিম্ন আদালতে জানিয়েছিলেন, তাঁদের সঙ্গে থাকা তার ছেলে ও বউ তাঁদের জীবনকে অতিষ্ঠ করে তুলেছে। পুলিশকেও তাঁরা একাধিকবার জানিয়েছেন এই বিষয়ে। এমনকি ছেলেকে ত্যাজ্যপুত্র ঘোষণা করে ২০০৭ এবং ২০১২ সালে বিজ্ঞপ্তিও জারি করেন তাঁরা। অন্যদিকে, বাবা-মায়ের সেই অভিযোগ অস্বীকার করে ছেলে জানায়, সেও ওই বাড়ির অংশীদার। বাড়ি বানাতে সেও টাকা দিয়েছে। যদিও ছেলের দাবি খারিজ করে বাবা-মা’র পক্ষেই রায় দেয় নিম্ন আদালত।

নিম্ন আদালতে মামলার রায় বাবা-মা’র পক্ষে যাওয়ায়, সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় ছেলে। সব শোনার পর হাইকোর্টও বাবা-মা’র পক্ষেই রায় দিয়েছে। বিচারপতি প্রতিভা রানি জানান, ছেলে যে বাড়ির অংশীদার সে সম্পর্কে সেভাবে কোনও প্রমাণ নেই ছেলের কাছে। উল্টোদিকে, সমস্ত দরকারি নথিপত্র পেশ করেছেন বাবা-মা। তাই রায় গিয়েছে তাঁদের পক্ষেই।