মেইন ম্যেনু

বিধবার সাথে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়লো এসআই, অতঃপর বিয়ে

চাঁদপুরে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা খাওয়ার পর পুলিশের এক উপপরিদর্শকের (এসআই) সঙ্গে এক বিধবা নারীকে কাজি ডেকে বিয়ে পড়িয়ে দিয়েছেন এলাকাবাসী। রোববার ভোরে হাইমচর উপজেলার নীলকমল ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের ওই এসআইয়ের নাম মনিরুল হক। পাঁচ সন্তানের জনক এসআই মো. মনিরুল হক ঈশানবালা বাহেরচর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। তার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় বিধবা তিন সন্তানের মা রাহিমা বেগমের সঙ্গে এসআই মনিরুল হককে আজ ভোরের দিকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে পিটুনি দেন স্থানীয় লোকজন। পরে তিন লাখ টাকা দেনমোহর নির্ধারণ করে দুজনকে বিয়ে দেন।

নীলকমল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. সালাউদ্দিন সরদার জানান, মনিরুলের প্রথম স্ত্রীর সম্মতি নিয়েই ওই নারীর সঙ্গে তার বিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ওই দুজনের বিয়ে পড়ান নীলকমল এমজেএস উচ্চবিদ্যালয়ের ধর্ম বিষয়ক শিক্ষক নজরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘স্থানীয় লোকজন ওই এসআইকে আটক করে আমাকে ডেকে নিয়ে বিয়ে পড়ানোর জন্য বলেন। উপস্থিত স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাক্ষীর ভিত্তিতে আমি তাদের বিয়ে পড়িয়ে দিই।’

এসআই মো. মনিরুল হকের মুঠোফোন বন্ধ পাওয়ায় তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। হাইমচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ মাহবুবুর রহমানের মুঠোফোনও বন্ধ পাওয়ায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।