মেইন ম্যেনু

বিপিএলে আজ গেইল বনাম আফ্রিদি

বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে টি ২০ ক্রিকেটের পোস্টার বয় ক্রিস গেইল। টুর্নামেন্টের মাঝপথে হলেও বিপিএল মাতাতে চলে এসেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান। চিটাগাং ভাইকিংসের হয়ে মাঠে নামছেন রোববার।

শুরুতেই গেইলের প্রতিপক্ষ টি ২০ ক্রিকেটের আরেক বড় বিজ্ঞাপন শহীদ আফ্রিদি। আজ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুর রাইডার্সের মুখোমুখি হবে চিটাগাং ভাইকিংস। আসল লড়াইটা ক্রিস গেইল ও শহীদ আফ্রিদির। এখন পর্যন্ত বিপিএলের সবচেয়ে মেগা ম্যাচ হয়তো এটাই। ম্যাচটি শুরু হবে বিকেল ৫টা ৪৫ মিনিটে।

বিপিএলের শুরু থেকেই এবার রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলছেন শহীদ আফ্রিদি। তবে নিজের নামে একটি স্টেডিয়ামের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করতে মাঝে দু’দিনের জন্য দেশে গিয়েছিলেন এই পাকিস্তানি অলরাউন্ডার। এ কারণে রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচে খেলতে পারেননি আফ্রিদি। তবে আজ মাঠে থাকছেন তিনি।

গেইল বাংলাদেশে এসেছেন শুক্রবার। কাল মিরপুর একাডেমি মাঠে অনুশীলনও সেরেছেন। ছিলেন স্বভাবসুলভ আমুদে মেজাজে। মিডিয়ার সঙ্গে প্রাণ খুলেই কথা বলেছেন তিনি। আগের তিন আসর মিলিয়ে বিপিএলে ১০ ম্যাচে গেইলের রয়েছে ৫০টি ছক্কা ও তিনটি সেঞ্চুরি। এই টুর্নামেন্টে তার ব্যাটিং গড় ১৮৬.২৬। ছক্কা দেখার জন্য দর্শকদের আজ মাঠে আসার আহ্বান জানালেন গেইল।

বিনোদনের পসরা মেলে ধরতে প্রস্তুত তিনি। কাল গেইল বলেন, ‘আসলে আমি তো ছক্কার জন্যই পরিচিত। সিক্স মেশিন হিসেবে চেনে লোকে। এটাই আমি সবচেয়ে ভালো পারি, ছক্কা মারতে। চেষ্টা করি যতটা সম্ভব বিনোদন দিতে। আশা করি, কালকের (আজ) উইকেট ভালো হবে। আমি উপভোগ করতে চাই। দর্শকরাও রোমাঞ্চিত আমি জানি। তাদের শক্তিটাও আমি নিতে চাই, সেটা আমার জ্বালানি। লোকে যখন আমার কাছে ছয় চায়, চিৎকার করে, সেটা আমাকে ভালো করতে অনুপ্রেরণা জোগায়।’

আফ্রিদি ছাড়াও গেইলের আজ আরেক বড় প্রতিপক্ষ আছে। সেই সোহাগ গাজী। ২০১২ সালে বাংলাদেশ সফরে এসে এই গাজীর বলেই গেইল আউট হয়েছেন বারবার। এবার রংপুরের হয়ে ভালো বোলিং করছেন এই ডান-হাতি স্পিনার। পুরনো স্মৃতি মনে করে গেইল কিছুটা অস্বস্তিতে থাকতে পারেন!

এদিকে আগের ম্যাচে আফ্রিদির অনুপস্থিতিতে হেরেছে রংপুর। এবার শুরু থেকেই দারুণ বোলিং করছেন আফ্রিদি। বিপিএলে এই পাকিস্তানি সব সময়ই দাপটের সঙ্গে খেলেছেন। একটা ম্যাচে দলে না পেয়ে রংপুরের কোচ জাভেদ ওমরও মিস করেছেন আফ্রিদিকে। আজ আফ্রিদিকে পেয়ে আবার জয়ে ফিরতে প্রস্তুত রংপুর।



(পরের সংবাদ) »