মেইন ম্যেনু

ব্যানার-ফেস্টুন অপসারণে হাইকোর্টের নির্দেশ

ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন রাস্তা, ফুটপাত, সড়কদ্বীপ, রোড মিডিয়ানে ব্যানার-ফেস্টুন লাগালে তা তাৎক্ষণিকভাবে অপসারণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে সিটি করপোরেশন এলাকায় অননুমোদিত বিলবোর্ড, ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন, তোরণ, দেয়াল লিখন ইত্যাদি অপসারণে করপোরেশনের কার্যক্রম অব্যাহত রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জারি করা রুল নিষ্পত্তি করে বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে সিটি করপোরেশনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মো. শাহজাহান। রিটকারী সংগঠন বাংলাদেশ পরিবেশ আইনজীবী সমিতির (বেলা) পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মিনহাজুল হক চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. খোরশেদুল আলম।

এর আগে গত ২২ আগস্ট দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশন হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করে।

দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত এক বছরে বিভিন্ন রাস্তা, ফুটপাত, সড়কদ্বীপ, রোড মিডিয়ান ইত্যাদি থেকে প্রায় ৪৪ হাজার ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টার অপসারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে অপসারিত ব্যানার ১১ হাজার ২৭৪টি, ফেস্টুন ১৩ হাজার ৯০৫টি এবং পোস্টার ১৮ হাজার ৭২৪টি। এ ছাড়া ৫৭৭টি বিলবোর্ড অপসারণ করা হয়েছে। এ ছাড়া নগরীকে সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও বসবাসযোগ্য রাখার লক্ষ্যে এ অপসারণ কার্যক্রম চলমান আছে।

উত্তর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে দেওয়া এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ সিটি করপোরেশন এলাকায় অননুমোদিত বিভিন্ন প্রকার বিলবোর্ড, ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন, তোরণ, দেয়াল লিখন ইত্যাদি অপসারণে করপোরেশনের কার্যক্রম চলমান আছে। ইতিমধ্যে এই অপসারণ কার্যক্রম ৯০ ভাগ বাস্তবায়ন হয়েছে। এ ছাড়া করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তাকে এ অপসারণ কার্যক্রম বাস্তবায়নে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সব আঞ্চলিক কর্মকর্তাকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

রাজধানীতে অননুমোদিত সব পোস্টার, ব্যানার ও তোরণ ২২ আগস্টের মধ্যে অপসারণের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে দেয়াল লিখনও মুছে ফেলতে বলা হয়। হাইকোর্টের ওই নির্দেশ মোতাবেক এই হলফনামা দাখিল করা হয়।

বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১২ সালের ১৮ মার্চ হাইকোর্ট এক আদেশে অননুমোদিত সব পোস্টার, ব্যানার ও তোরণ অপসারণের নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে রুল জারি করেন। সেই রুল নিষ্পত্তি করে বুধবার হাইকোর্ট বিভিন্ন রাস্তা, ফুটপাত, সড়কদ্বীপ, রোড মিডিয়ানে ব্যানার-ফেস্টুন লাগালে তা তাৎক্ষণিকভাবে অপসারণের নির্দেশ দেন।