মেইন ম্যেনু

বড় চমক দিয়ে অবশেষে বদলাচ্ছে জাতীয় দল

1480645950

বিপিএলের আগেই নিউজিল্যান্ড সফর ও অস্ট্রেলিয়া ক্যাম্পের জন্য দল দিয়ে দেওয়াটা একটা হাস্যকর ব্যাপার ছিলো। এখন বিপিএল মাঝপথে আসার আগেই বিসিবি মোটামুটি হাসিটা মেনে নিয়ে নিজেদের সেই দল বদলাতে যাচ্ছে।

আগেই বিসিবি সভাপতি ইঙ্গিত দেওয়ার পর গতকাল প্রধাণ নির্বাচক মিনহাজুল আবেদী নান্নুও একটি জাতীয় দৈনিকে বলেছেন ৪ তারিখে তারা আগে ঘোষিত দলে কিছু পরিবর্তন আনবেন। ইনজুরি ও ফর্মহীনতার কারণে আসবে এসব পরিবর্তণ।

নতুন করে দলে কারা ঢুকছেন, তা কেউ না বললেও কয়েকটা নাম বেশ পরিষ্কার। শাহরিয়ার নাফীস, নাসির হোসেন, রুবেল হোসেন, মেহেদী মারুফ ও কামরুল ইসলাম রাব্বি আছেন আলোচনায়। এর মধ্যে নাফিস ও নাসির অনেকটাই নিশ্চিত।

দলে সুযোগ পেতে পারেন এমন ক্রিকেটারদের তালিকায় সবার আগে আলোচিত হচ্ছে শাহরিয়ার নাফিস, নাসির হোসেন ও মেহেদী মারুফের নাম। ১০ ম্যাচে (গতকালকের ম্যাচ ছাড়া) তিনটি হাফ সেঞ্চুরিতে শাহরিয়ার নাফিস ২৬২ রান করেছেন। অভিজ্ঞ এই বাঁ-হাতি ওপেনারের ব্যাটিং নজর কেড়েছে নির্বাচকদেরও।

ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে খেলা নাসির ছিলেন না প্রাথমিক দলে। বিপিএলে ১০ ম্যাচের ছয় ইনিংসে ব্যাট করে ১৪৫ রান ও চার উইকেট নেয়া নাসির সুযোগ পেয়ে যেতে পারেন নিউজিল্যান্ড সফরের দলে।

আরেক ডান-হাতি ওপেনার মেহেদী মারুফ বলা চলে বিপিএলের বড় চমক। ঢাকার হয়ে ১০ ম্যাচে দুইটি হাফ সেঞ্চুরিতে ৩০৭ রান করেছেন। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে তার আক্রমণাত্মক ব্যাটিংটা বাংলাদেশ দলের জন্যও কার্যকর হতে পারে।

বোলিং বিভাগে পরিবর্তন প্রায় নিশ্চিত। কারণ ইতোমধ্যে পায়ের ইনজুরির কারণে বিপিএল থেকে ছিটকে গেছেন পেসার মোহাম্মদ শহীদ। সিডনিতে দুই সপ্তাহের ক্যাম্পে নিশ্চিতভাবেই থাকতে পারছেন না শহীদ।

শুরুতে প্রাথমিক দলে না থাকা পেসারদের মধ্যে রুবেল হোসেনই কিছুটা ফর্ম ফিরে পেয়েছেন বিপিএলে। ১০ ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়েছেন তিনি রংপুরের হয়ে। তাই শহীদের ইনজুরি তার কপাল খুলে দিতে পারে। তাছাড়া স্ট্যান্ড বাই তালিকা থেকে মূল দলে আসতে পারেন পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বিও।-খেলাধুলা