মেইন ম্যেনু

ভোটকেন্দ্রভিত্তিক কমিটি করে প্রচারে নামার নির্দেশ

আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি দিতে দলের নেতাকর্মীদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ জন্য ভোটকেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠন করে ভোটারদের কাছে সরকারের উন্নয়নের বর্ণনা তুলে ধরতেও বলেছেন তিনি।

গণভবনে আওয়ামী লীগের জেলা কমিটির নেতাদেরকে এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা। গত শনি ও বরিবারের জাতীয় সম্মেলনে অংশ নিতে এই নেতারা ঢাকায় এসেছিলেন।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ওই মাসেই দায়িত্ব নিয়েছিল আওয়ামী লীগ সরকার। সংবিধান অনুযায়ী ২০১৯ সালের জানুয়ারির আগে ৯০ দিনের মধ্যে হবে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সরকার বলছে, মেয়াদ শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত নির্বাচন হবে না কোনোমতেই।

সরকারের এই অবস্থান ঠিক থাকলেও আগামী নির্বাচনের জন্য সময় আছে আরও প্রায় দুই বছর। তবে এখন থেকেই প্রস্তুতি নেয়ার পক্ষে শেখ হাসিনা। দলের জাতীয় সম্মেলনেও এ বিষয়ে দিক নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

নেতৃত্ব নির্বাচনে দলের সম্মেলনে শেখ হাসিনা ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে কী কী করতে হবে সে বিষয়ে বিস্তারিত পরিকল্পনা উপস্থাপন করেছেন্। বলেছেন, টানা তৃতীয়বার নির্বাচিত হতে জনগণের মন জয়ে তাদের কাছে যেতে।

জাতীয় সম্মেলন শেষে গণভবনে জেলার নেতাদেরকেও একই নির্দেশ দেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘সামনে নির্বাচন। আমরা যে উন্নয়ন করছি, জনগণের কাছে সেটা বলে ভোট চাইতে হবে। কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি করে গণসংযোগ করার প্রস্ততি নিতে হবে। যাতে করে আমরা আবার ক্ষমতায় আসতে পারি।’

বর্তমান সরকার কোন কোন খাতে উন্নয়ন করছে, সে সব নিয়ে প্রকাশনা তৈরি করা হয়েছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। বলেন জাতীয় সম্মেলনে যারা এসেছেন, তাদের সবাইকেই একটি ব্যাগ দেয়া হয়েছে এবং এর ভেতরে এসব প্রকাশনা দেয়া হয়েছে।

এসব প্রকাশনা নিজেরা পড়ার পাশাপাশি জনগণের কাছেও সেগুলো তুলে ধরার কথা বলেন শেখ হাসিনা। বলেন, ‘ভবিষ্যতে মানুষ যেন কেবল না বলে এগুলো সরকার করেছে। অনেক সরকার আসে যায়, কিন্তু এগুলো যে আওয়ামী লীগ করেছে, সেগুলো মানুষকে বলে দিতে হবে।’

জাতীয় সম্মেলনের মতো এই বক্তব্যেও নিঃস্ব, ভূমিহীনদেরকে ঘরবাড়ি করে দেয়ার কথা বলে তাদের তালিকা তৈরির নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের প্রতিজ্ঞা থাকবে বাংলাদেশে একটা মানুষও গরিব থাকবে না।’