মেইন ম্যেনু

মদ পানের ক্ষেত্রে পুরুষদের প্রায় ধরে ফেলেছে মহিলারা

_92068545_thinkstockphotos-482225699_20666

মদ পানের ক্ষেত্রে পুরুষদের প্রায় ধরে ফেলেছে মহিলারা। তাদের মধ্যে মদ পানের অভ্যাস দ্রুত বাড়ছে। বিশ্ব জুড়ে পরিচালিত এক সমীক্ষায় এই দাবি করা হয়েছে।

১৮৯১ সাল হতে ২০০১ সাল পর্যন্ত জ্ন্ম নেয়া প্রায় চল্লিশ লাখ মানুষের তথ্য বিশ্লেষণ করে এর আগে গবেষকরা দেখিয়েছিলেন, পুরুষদের মধ্যে মদ পানের অভ্যাস ছিল বহুগুণ বেশি এবং এ কারণে মদ্য পান জনিত স্বাস্থ্য সমস্যায় তারা বেশি ভুগতো।

কিন্তু এর পরবর্তী প্রজন্মে মদ পানের ক্ষেত্রে নারী পুরুষের এই ব্যবধান কমে এসেছে।

গবেষকরা বলছেন, সমাজে নারী-পুরুষের ভূমিকার পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে মদ পানের ক্ষেত্রে দুই লিঙ্গের ব্যবধান দ্রুত বিলীন হয়ে যাচ্ছে।

গবেষণায় দেখা যায়, বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে নারীর তুলনায় পুরুষদের মদ পানের অভ্যাস ছিল দ্বিগুণের বেশি।

কিন্তু এখন মদ পানের ক্ষেত্রে নারী পুরুষের এই অনুপাত এক দশমিক এক।

গবেষণাটি চালায় অস্ট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অব নিউ সাউথ ওয়েলস।

যদিও এই সমীক্ষার তথ্য সংগ্রহ করা হয় সারা বিশ্ব থেকে, জরিপের বেশিরভাগ তথ্য এসেছে উত্তর আমেরিকা এবং ইউরোপ থেকে।

গবেষকরা বলেছেন, মদ পানের অভ্যাস এবং মদ পান জনিত নানা সমস্যাকে ঐতিহাসিকভাবে একটি পুরুষালী সমস্যা হিসেবে দেখা হতো।

কিন্তু এখন আর এরকম অনুমানের কোন সুযোগ নেই।

লন্ডন স্কুল অব হাইজিন এন্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিনের অধ্যাপক মার্ক পেটিক্রু বলেন, সমাজে নারী এবং পুরুষের ভূমিকার অনেক পরিবর্তন হয়েছে বিগত দশকগুলোতে। এটি অংশত মদ পানের ক্ষেত্রে এই নতুন প্রবণতা কিছুটা ব্যখ্যা করে, পুরোপুরি নয়।

তিনি বলেন, এখন অ্যালকোহলের সহজলভ্যতাও হয়তো আরেকটি কারণ। আর যারা অ্যালকোহল বিপনন করছে, তারা ভোক্তা হিসেবে নারী, বিশেষ করে তরুণীদের টার্গেট করছে । সূত্র:বিবিসি