মেইন ম্যেনু

মন্ত্রীর মেয়ের বিয়েতে খরচ ৬০০ কোটি টাকা

92447508-20161116153459

ভারতে কালো টাকার মালিকদের শিক্ষা দিতে এবং জাল নোটের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের অংশ হিসেবে ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট বাতিল ঘোষণা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ৮ নভেম্বর ওই ঘোষণার পর থেকেই ভারতে চলছে নগদ অর্থের সঙ্কট। এ নিয়ে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়াও দেখা দিয়েছে ভারতীয় জনগণের মধ্যে। এই সঙ্কটের মধ্যেই ৫০০ বিলিয়ন রুপি খরচ করে নিজের মেয়ের বিয়ে দিচ্ছেন দেশটির সাবেক মন্ত্রী জি জনার্দন রেড্ডি।

পাঁচ দিনব্যাপী এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মেয়ে ব্রাহ্মণীর বিয়ে সম্পন্ন করছেন তিনি। নাচ-গানের জন্য অনুষ্ঠানে আনা হবে বলিউডের অনেক তারকাদের। শাহরুখ খান, আলিয়া ভাটদের মতো সুপার স্টারদেরও থাকার কথা রয়েছে। সব মিলিয়ে বাজেট করা হয়েছে ৫০০ বিলিয়ন রুপি, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৬০০ কোটি টাকার সমান। এদিকে বিলাসবহুল ওই বিয়ে নিয়ে চলছে ব্যাপক সমালোচনা। এই বিয়ের অনুষ্ঠানকে ‘সম্পদের অশালীন প্রদর্শনী’ বলে আখ্যায়িত করছেন অনেকে।

জি জনার্দন রেড্ডি ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সাবেক সদস্য এবং কর্নাটক রাজ্যের সাবেক মন্ত্রী। তিনি একজন খনি ব্যবসায়ী। দুর্নীতির দায়ে ২০১১ সালের ৫ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার হয়ে চার বছর জেল খেটেছেন জনার্দন। গত বছর জামিনে মুক্তি পান তিনি। ১২ নভেম্বর পাত্রীর হাতে মেহেদি লাগানোর মাধ্যমে বিয়ের অনুষ্ঠান শুরু হয়। ১৬ তারিখ বিয়ে দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হবে।

নিজের মেয়ের বিয়ের খরচ সম্পর্কে জনার্দন বলেন, এই অর্থ তিনি সিঙ্গাপুর এবং ভারতের বেঙ্গালুরে নিজের সম্পত্তি বন্ধক রেখে তুলেছেন। তবে এতে থেমে নেই সমালোচনা। সামাজিক মাধ্যমে এই বিয়ের খরচের তীব্র সমালোচনা করছে ভারতের জনগণ।

বিয়েতে কনের শাড়ির দামই পড়েছে ১৭ কোটি টাকা। পাশাপাশি তার গায়ে থাকবে ৯০ কোটি টাকা মূল্যের অলঙ্কার। বিয়েতে আমন্ত্রণ করা হয়েছে ৩০ হাজার অতিথি। তাদের থাকার জন্য বিলাসবহুল হোটেলের ১৫০০টি কক্ষ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সঙ্গে ভাড়া করা হয়েছে ২০০০ ক্যাব। ভিআইপিদের জন্য থাকছে হেলিকপটারের ব্যবস্থা। তার জন্য তৈরি করা হয়েছে ১৫টি হেলিপ্যাড।