মেইন ম্যেনু

মাদারীপুরে বিনামূল্যে ঠোঁট কাটা ও তালুকাট রোগীদের চিকিৎসা শিবির উদ্বোধন

picture-2

মাসুদ রেজা ফিরোজী, মাদারীপুর : মাদারীপুরে প্রতিবছরের মতো এবারেরও আচমত আলী খান ফাউন্ডেশন ও তায়েবা মেডিকেল সেন্টার, নাইরোবী, কেনিয়ার উদ্যোগে বিনামূল্যে ঠোঁট কাটা ও তালুকাট রোগীদের আন্তর্জাতিক মানের অপারেশনের চিকিৎসা শিবির উদ্বোধনী করা হয়।

আচমত আলী খান নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের পিতা, গত ১০ বছর যাবৎ এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এ বিনামূল্যে ঠোঁট কাটা ও তালুকাট রোগীদের চিকিৎসা ও অপারেশনের কাজ করে আসছে। আচমত আলী খান ছিলেন একজন মুক্তিযোদ্ধা, জেলা আওয়ামীলীগের একজন নেতা ও সমাজ সেবক। নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এর পরিবারিক এ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রতিবছর বিনামূল্যে ঠোঁট কাটা ও তালুকাট রোগীদের সেবা দিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় আজ শুক্রবার জেলা সদর জামে মসজিদের প্রাঙ্গনে আয়োজিত এক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে বিনামূল্যে ঠোঁট কাটা ও তালুকাটা রোগীদের অপারেশন ও চিকিৎসা দেয়া শুরু করে।

এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের উঠে আসা বক্তব্য হল, মাদারীপুুরে পুরানবাজারের পুলিশ ফারির পুকুরটি তিনি কোন নিজের স্বার্থে জন্য ভরাট করছেন না, এটি মাদারীপুরকে আড়িয়া খা নদীর ভাঙ্গনের হাত থেকে বাচানর জন্য এই পুকুরটি ভরাট করতে যাচ্ছিলেন এবং এটি ভরাট করে পার্ক স্থাপনের কথা বলেন। এর মধ্য মাদারীপুরের পরিবেশবাদি কর্মীরা তারা এই পুকুরটি ভরাট করতে দিচ্ছেনা এবং তারা আইনের মাধ্যমে পুকুরটির ভরাট কাজ বন্ধ করে দেয়। তিনি আরোও বলেন, আমরাও এটি আইনের মাধ্যমে এ পুকুরের ভরাটের কাজ করব।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চিনের রাস্টদূত মা মিং কুইং তারা উঠে আসা বক্তব্য হল, চিন বাংলাদেশের অনেক উন্নয়নের কাজ করছে, এ উন্নয়নের কাজের ধারাবাহিকতা আগামীতে থাকবে। তিনি আরোও বলেন, উন্নয়নের কাজে বাংলাদেশকে আরোও আর্থিক সহযোগিতাও দেওয়া হবে।

এ সময়ে আরোও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক কামাল উদ্দিন বিশ্বাস, পুলিশ সুপার সরোয়ার হোসেন, জেলা পরিষদের প্রশাসক মিয়াজউদ্দিন খান, আনোয়ার গ্রুপের চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেন, প্রমিয়াম সিমেন্টের ব্যবস্থাপন পরিচালক মনজুর হোসেন ও অন্যান অতিথিসহ বিদেশী ডাক্তারগন।

পরে আনোয়ার গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রমিয়াম সিমেন্টর ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ আরোও একজন বিত্তবান ৫লাক্ষ টাকা করে আর্থিক সহযোগিতা করে আচমত আলী খান ফাউন্ডেশনকে।