মেইন ম্যেনু

মানুষ জন্মায় একবার, কিন্তু ইনি জন্মালেন দু’বার!

1478043143

কত রকম আশ্চর্য ঘটনাই না ঘটে বিশ্বজুড়ে। টেক্সাস-এর একটি ঘটনাও এবার সেই তালিকায় পড়ল। একটি শিশু জন্ম নিল দু’বার। শুনতে অবাক লাগলেও সত্যি। এক জটিল অপারেশনের জন্য তাকে মাতৃগর্ভ থেকে বের করা হয় ১৬ সপ্তাহের মাথায় এবং এরপর আবার তাকে গর্ভেই ফিরিয়ে দেওয়া হয় সুস্থভাবে বেড়ে ওঠার জন্য। এবং তারপর নির্দিষ্ট সময় আবার সে জন্মায়। সম্ভবত বিশ্বে এই ঘটনা প্রথমবার, এমনটাই মনে করছেন চিকিৎসকরা।

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, শিশুটির মায়ের একটি সাধারণ আল্ট্রাসাউন্ড করা হয়েছিল গর্ভধারণের ১৬ সপ্তাহের মাথায়। তখনই শিশুটির টেইলবোন-এ ডাক্তাররা একটি টিউমার খুঁজে পান। ডাক্তারি ভাষায় একে স্যাকরোককসিজিল টেরাটোমা বলা হয়। এই অবস্থায় একটিই উপায় খোলা ছিল চিকিৎসকদের সামনে— শিশুটিকে গর্ভের বাইরে এনে অপারেশন করা।

শিশুটির মা মার্গারেট জানান, ‘ডাক্তাররা স্ক্যান করে আমাদের সন্তানের মধ্যে গুরুতর কিছু হয়েছে বলেই বুঝতে পারেন। এবং তারপর আমাদের এসে বলেন, ওর স্যাকরোককসিজিল টেরাটোমা রয়েছে। এই শব্দটার সঙ্গে আমরা অপরিচিত ছিলাম। তাই আমাদের ভয় বাড়ছিল।’

তারপর চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন। এবং যখন মাতৃগর্ভ থেকে তাকে বের করে আনা হয় কুড়ি মিনিটের জন্য, তার ওজন ছিল মাত্র ৫৮৩ গ্রাম। অপারেশনের পরে মাতৃগর্ভে শিশুটি ছিল আরও প্রায় ১২ সপ্তাহ। এবং গত ৬ জুন সে পুনরায় সুস্থভাবে জন্ম নেয়। জন্মের পর তার শরীর থেকে টিউমারের বাকি অংশগুলি বাদ দেওয়া হয়।-এবেলা