মেইন ম্যেনু

‘মালাউন’ বলেছি প্রমাণ করতে পারলে মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেবো : ছায়েদুল হক

sayedul-haque

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী মো. ছায়েদুল হক দাবি করেছেন তিনি কোনও সম্প্রদায়কে আঘাত করা উদ্দেশ্যে কোনও বক্তব্য রাখেননি। তিনি কাউকে ‘মালাউন’ বলেও গালাগাল করেননি। যদি কেউ এ বক্তব্য প্রমাণ করতে পারে তাহলে তিনি মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেবেন।

রবিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ২৮ অক্টোবর শুক্রবার রসরাজ নামের এক সংখ্যালঘু যুবকের ফেসবুক পেজে ইসলাম ধর্ম অবমাননাকর ছবি ও স্ট্যাটাস আপলোড হওয়াকে কেন্দ্র করে ওই এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ওই যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হলেও এর প্রতিবাদে আহলে সুন্নাত নামের একটি মৌলবাদী সংগঠন সেখানে প্রতিবাদ সভা আহ্বান করে। পরে ৩০ অক্টোবর রবিবার ওই সভাকে কেন্দ্র করে এক দল মানুষ উত্তেজিত হয়ে নাসিরনগর উপজেলা সদরের অধিকাংশ হিন্দুবাড়িতে হামলা চালায় ও মন্দির ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় সবমহলে সমালোচনার মধ্যেই অভিযোগ ওঠে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মো. ছায়েদুল হক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে নিজেই হিন্দু সম্প্রদায়কে ‘মালাউনের বাচ্চা’ বলে গাল দিয়েছেন।

গণমাধ্যমগুলোতে তাকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, মন্দিরে হামলার পর মঙ্গলবার রাতে নাসিরনগরের ডাকবাংলোয় মন্ত্রী বলেছেন, ‘মালাউনের বাচ্চারা বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি করছে। আর এ ঘটনাকে ফুলিয়ে-ফাঁপিয়ে প্রচার করে অতিরঞ্জিত করেছে সাংবাদিকরা। অথচ ঘটনা কিছুই নয়’।

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সব মহলে তীব্র সমালোচনা শুরু হলে বিষয়টি নিয়ে সরকারের শীর্ষ পর্যায়েও খতিয়ে দেখার কথা বলা হয়।

তবে বিতর্কিত বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে শুক্রবার সন্ধ্যায় বাংলা ট্রিবিউনকে মন্ত্রী ছায়েদুল হক বলেন, ‘আমি হিন্দুদের কখনোই মালাউন বলিনি। এটা আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার। আমি মালাউন বলেছি বলে যারা বলছে, তারা বিষয়টির প্রমাণ দিক। কে শুনেছে? আমি চ্যালেঞ্জ করছি।’ তবে, এর জবাবে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত বলেছেন, ‘আমরা যে অভিযোগ পেয়েছি, তাতে বলা হয়েছে তিনি হিন্দুদের মালাউনের বাচ্চা বলেছেন।’



« (পূর্বের সংবাদ)