মেইন ম্যেনু

মিঠাপুকুরে ২৩ দিন পর কবর থেকে মহিলার লাশ উত্তোলন

News Picture 2

মোঃ শামীম আখতার, উপজেলা প্রতিনিধি, মিঠাপুকুর (রংপুর)॥ মিঠাপুকুরের মুরগীর খামারের শেয়াল মারার বৈদ্যুতিক ফাঁদে জড়িয়ে মৃত মহিলার লাশ ২৩ দিন পর বকর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। রোববার উপজেলার লতিবপুর ইউনিয়নের বাতাসন দূর্গাপুর গ্রামে নির্বাহি মেজিষ্ট্রেট এর উপস্থিতি লাশটি উত্তোলন করা হয়।

মিঠাপুকুর থানা পুলিশ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার লতিবপুর ইউনিয়নের বাতাসন দূর্গাপুর গ্রামের সৈকত মিয়ার মুরগীর খামারে শেয়াল মারার জন্য বৈদ্যুতিক ফাঁদ তৈরী করেন। গত ২৬ মে একই গ্রামের তহিদুল ইসলামের স্ত্রী নাজমা (৩২) ছাগল খুজতে গিয়ে শেয়াল মারা বৈদ্যুতিক ফাঁদের তারে জড়িয়ে মারা যায়। বিষয়টি থানা পুলিশকে না জানিয়ে নাজমা বেগমের লাশ কবর দেওয়া হয়। পরে খবর পেয়ে মিঠাপুকুর থানা পুলিশ বাদী হয়ে ২৯ মে একটি মামলা দায়ের এবং কবর থেকে লাশ উত্তোলনের জন্য আদালতে আবেদন করেন। এরই প্রেক্ষিতে, রোববার দুপুরে নির্বাহি মেজিষ্ট্রেট তানজিলা মেহনাজ ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) মানুন-অর-রশীদের উপস্থিতে নাজমা বেগমের লাশ উত্তোলন করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। মিঠাপুকুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হুমায়ুন কবীর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আদালতের নির্দেশেই লাশ উত্তোলন করা হয়েছে।