মেইন ম্যেনু

মিরাজের বাউন্ডারিতে রাজশাহীর জয়

miraz20161121170022

শেষ ওভারে প্রয়োজন ৯ রান। বোলার ইংল্যান্ডের ম্যাট কোলস। ব্যাটসম্যান আবুল হাসান রাজু আর ফরহাদ রেজা। এমন পরিস্থিতিতে ম্যাচ হারের ঘটনা রয়েছে রাজশাহী কিংসের। কিন্তু সব বোলার তো আর মাহমুদউল্লাহ নয়। সুতরাং, প্রত্যাশা করার মতো কারণ ছিলো রাজশাহীর।

সেই আশার গুড়ে বালি ঢেলে দিয়ে কোলসের প্রথম বলেই আউট হয়ে গেলেন আবুল হাসান রাজু। খুলনার বিপক্ষে সেই পরাজয়ের ম্যাচটির স্মৃতিই উঁকি দিচ্ছিল তখন। এ সময়ই মাঠে নামেন তরুণ মেহেদী হাসান মিরাজ। নেমেই এক রান নিয়ে স্ট্রাইকে পাঠালেন অভিজ্ঞ ফরহাদ রেজাকে।

পরের বলেই বাউন্ডারি মেরে দিলেন ফরহাদ রেজা। শেষ তিন বলে প্রয়োজন ৪ রান। এ সময় ফরহাদ রেজা লং অফে খেলেন। দৌড় শুরু করেন মিরাজ। বাধ্য হয়ে ফরহাদ রেজাও দৌড় দিলেন; কিন্তু তিনি রানটি নিতেই চাননি। কেন নন স্ট্রাইকিং প্রান্তে মিরাজ তাকে পাঠিয়ে দিলেন এ জন্য এক পশলা রাগও ঝড়ালেন ফরহাদ রেজা।

তিনি তো জানতেন মিরাজ শুধুই বোলার নন, একজন ব্যাটসম্যানও। ক্রিকইনফোর কমেন্টারিতে ওই সময় লেখা হলো, ‘এবারের বিপিএলে এটাই হলো বড় সমস্যা। একজন ভালো ফিনিশার কেউ পেলো না। বড় বড় অনেক ইনিংস খেলা হলো; কিন্তু কেউ সেই ইনিংস দিয়ে ম্যাচকে সমাপ্তি এনে দিতে পারলেন না।’

এমন কথা বলতে না বলতেই ম্যাট কোলসকে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টের ওপর দিয়ে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ব্যাট হাতে সুযোগ কম পান। কিন্তু একটু সুযোগ পেয়েই রাজশাহীকে অসাধারণ এক জয় উপহার দিলেন ১৯ বছর বয়সের এই যুবা।

ঢাকা ডায়নামাইটসের করা ১৮২ রানের জবাবে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৮৪ রান করলো রাজশাহী কিংস। ৩ উইকেটে ঢাকাকে হারিয়ে টুর্নামেন্টে নিজেদের টিকিয়ে রাখলো সাব্বির-মিরাজদের দল রাজশাহী কিংস।