মেইন ম্যেনু

মেজাজ হারিয়ে এ কী বললেন মেসি!

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গত কয়েকটি আসরে ম্যানচেস্টার সিটিকে হেলায় হারিয়েছিল বার্সেলোনা। চলতি মৌসুমেও গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ জায়ান্টদের ৪-০ গোলে উড়িয়ে দেয় বার্সা। তবে মঙ্গলবার রাতে ম্যানসিটির কাছে ৩-১ গোলে হেরে যায় বার্সেলোনা। তবে কাতালানদের হার ছাপিয়ে আলোচনায় এসেছে লিওনেল মেসির মেজাজ হারানোর ঘটনা। ম্যাচ শেষে নাকি ড্রেসিং রুমের পথ টানেলে প্রতিপক্ষ দলের এক খেলোয়াড়ের সঙ্গে রূঢ় আচরণ করেছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার।

ঘটনা বেশি দূর এগোনোর আগেই ম্যানচেস্টার সিটি তারকা সার্জিও আগুয়েরো মেসিকে শান্ত করেন এবং দুই পক্ষের মধ্যে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন। স্প্যানিশ রেডিও স্টেশন কোপ দাবি করে, ম্যাচ শেষে মাঠ ছাড়ার সময় ম্যানচেস্টার সিটির এক তারকা মেসিকে কিছু বলেছিলেন; তার জবাবে মেসি তাকে ‘নির্বোধ’ বলে ঠাট্টা করেন।

মাঠ থেকে ফিরেই মেসি নাকি ম্যানসিটির ড্রেসিংরুমের দিকে তেড়ে যান এবং বলেন, ‘এখানে এসো, লুকিয়ে থেকো না।’ সঙ্গে সঙ্গেই আগুয়েরো এসে বুক চাপড়ে মেসিকে শান্ত করেন। ম্যানসিটি তারকার সঙ্গে কী ঘটেছে সেটি পরিষ্কার জানা না গেলেও আর্জেন্টিনার নাম্বার টেন যে মেজাজ হারিয়েছেন সেটি নিশ্চিত।

তবে ব্যাপারটিকে বড় করে দেখতে নারাজ মেসির জাতীয় দলের সতীর্থ-কাম বন্ধু এবং মঙ্গলবারের প্রতিপক্ষ আগুয়েরো। তিনি বলেন, ‘আপনি যখন হেরে যাবেন তখন খুব একটা সুখি থাকবেন না। আমি তাকে সেখানে দেখেছি; তার অবস্থাও খুব একটা ভালো ছিল না। মন-মেজাজ খারাপ বা ভালো থাকলে তার কী হাল হয় সেটা আমার ভালোই জানা আছে। কিন্তু যখন আপনি হেরে যাবেন তখন কেউই ভালো থাকবে না।’

এরপর আগুয়েরো আরো বলেন, ‘আমি মনে করেছিলাম মেসি আমাকে কিছু বলেছিল কিন্তু সে আমাকে কিছু বলেনি; পরে সে অন্য একজনের দিকে যায়। এটি মারাত্মক কিছু নয়। আমি কিছু একটা শুনেছি; তবে ঠিক কী হয়েছে সেটা জানি না।’

এরপর বন্ধু মেসির পক্ষাবলম্বন করে আগুয়েরো বলেন, ‘যখন কেউ হেরে যায় তবে তাকে আপনার সম্মান করতেই হবে। লিও কথা বলার মতো মুডে ছিল না এবং আমি সেটিকে সম্মান করি।’

প্রসঙ্গত, প্রতিপক্ষের মাঠে মঙ্গলবার রাতে খেলার ২১তম মিনিটে মেসির গোলেই এগিয়ে গিয়েছিল বার্সেলোনা। তবে গুনদোয়ানের জোড়া গোল ও কেভিন ডি ব্রুইনের লক্ষ্যভেদে ৩-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ম্যানচেস্টার সিটি।