মেইন ম্যেনু

নোবিপ্রবিতে আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প উদ্বোধনে ওবায়দুল কাদের

‘মেধাবীরা রাজনীতিতে না এলে দেশ ক্ষতিগ্রস্থ হবে’

news-3

এম.এ আয়াত উল্যা, স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী : সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মেধাবী শিক্ষার্থীদের রাজনীতিতে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, মেধাবী শিক্ষার্থীরা রাজনীতিতে না এলে রাজনীতির মঞ্চের চেয়ারগুলোতে খারাপ মানুষগুলো বসে পড়বে। এতে রাজনীতি মেধাশূণ্য হয়ে পড়বে, আর ক্ষতিগ্রস্থ হবে গোটা দেশ। মেধা অর্জনের জন্য রাজনীতি বাধা হয়ে থাকতে পারে না। গতকাল রোববার দুপুরের দিকে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী ইদ্রিস মিলনায়তনে’ আয়োজিত আইসিটি ক্যাম্প’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য করে এসব কথা বলেন। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আইসিটি বিভাগ এ ক্যাম্পের আয়োজিন করেন। ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, দেশজুড়ে নিরবে আইসিটির বিপ্লব হচ্ছে। সকল দপ্তর ডিজিটাল সেবা প্রদান করছে। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয় দেশকে প্রযুক্তি দিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে এখন বাংলাদেশও প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের তথ্য ও প্রযুক্তিতে শিক্ষিত যুবকরা দেশ চাড়িয়ে বিদেশেও জায়গা করে নিচ্ছে। তিনি রাজনীতিকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমাদের দেশে সবাই ভাল কথা বলে। এত বেশি ভাল কথা বলা হয়েছেÑ সে তুলনায় ভাল কাজ নেই। তাই কথা কম বলে কাজ করে দেখাতে হবে। তাহলে দেশের উন্নয়ন হবে, দেশ এগিয়ে যাবে। দেশ এগিয়ে গেলে আমরা এগিয়ে যেতে পারব।’ মন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমি ভিসি সাহেবকে অনুরোধ করছি আপনি শিক্ষকদের নিয়ে রাজনীতি করবেন না। ছাত্রদেরও শিক্ষকদের রাজনীতিতে জড়াবেন না। ছাত্রদের নিয়ে শিক্ষকেরাও যদি রাজনীতি করেন তা হলে শিক্ষার পরিবেশ আর থাকবে না। এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।’ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মাদকের বিস্তারের বিষয়ে ইঙ্গিত করে বলেন, সর্বনাশা মাদক আমাদের দেশকে, তরুণ সমাজকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। ইয়াবার বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন এবং তীব্র প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। ইয়াবাসহ সকল মাদককে ‘না’ বলতে হবে। এসময় তিনি ‘ইয়াবাকে না বলুন’ উচ্চারণ করে বেশ কয়েকবার স্লোগান দেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম অহিদুজ্জামান। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগযাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপউপাচার্য মো. আবুল হোসেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত সাংসদ মোরশেদ আলম ও আয়েশা ফেরদৌস, জেলা প্রশাসক বদরে মুনির ফেরদৌস, পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক তাঁর বক্তব্যে বলেন, প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে পৃথিবীর অনেক দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আমরাও তথ্য প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যেতে চাই। প্রযুক্তির এই শক্তিকে দেশের স্বার্থে এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষে কাজে লাগানোর আহ্বান জানান তিনি। তিনি বলেন, নোবিপ্রবিতে আয়োজিত ‘‘আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প ২০১৬’’ সরকারের ৩১তম কর্মসূচি। বিশ্ববিদ্যালয়ে তার দপ্তরের উদ্যোগে দেড় কোটি টাকা ব্যায়ে একটি স্পেশালাইজড ল্যাব, একটি বিজনেস আইটি ইন্টু সেন্টার, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসকে ওয়ায়ফাই’র আওতায় অন্তর্ভুক্ত করা ও শিক্ষার্থীদের মাঝে ১০০টি ল্যাম্পটপ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। আগামী অল্প কিছুদিনের মধ্যে নোয়াখালীতে বিশ্বমানের ‘আইটি পার্ক’ নির্মাণের কাজ হাতে নেয়া হবে। এ জন্য জেলার সোনাইমুড়িতে জমিও দেখা হয়েছে বলে জানান তিনি। এর আগে ওবায়দুল কাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছে আবদুল মালেক উকিল হল ও আইসিটি মেলার উদ্বোধন করেন। দিনব্যাপী এ মেলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়টি স্টলসহ জেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা ৪০টি স্টল অংশ নেয়। তথ্য ও প্রযুক্তির বিষয়ে ধারণা নিতে মেলার স্টলগুলোতে শিক্ষার্থীদের সরব উপস্থিতি দেখা যায়।

news-1

news-6 news-4 news-2