মেইন ম্যেনু

মোদীকে খুনের ষড়যন্ত্র! কী করল দিল্লি পুলিশ?

modi20161113145804

শনিবার সকাল সাড়ে এগারোটা নাগাদ আচমকাই দিল্লি পুলিশের কাছে ফোনটি এসেছিল। ফোনে দাবি করা হয় কে বা কারা নরেন্দ্র মোদীকে খুনের ষড়যন্ত্র করছে। কয়েকজনকে নাকি এই নিয়ে আলোচনা করতে শুনেছেন বলে ফোনে জানান সেই ব্যক্তি। সেই সময় তিনি পাশে দাঁড়িয়ে থাকায় এই পুরো আলোচনাটি শুনতে পেয়েছিলেন বলে দাবি করেন তিনি। ব্যস্‌, এই বলেই ফোন কেটে দেন ওই ব্যক্তি।

মুহূর্তের মধ্যে দিল্লি পুলিশের সমস্ত বিভাগকে সতর্ক করে দেওয়া হয়। তদন্তে নেমে পড়ে ক্রাইম ব্রাঞ্চ। ফোন কল ট্রেস করে দেখা যায়, ফোনটি এসেছিল যে সিমকার্ড থেকে সেটি দীনেশ কুমার বলে এক ব্যক্তির নামে ইস্যু হওয়া। আর ফোন কলের সময় ওই ব্যক্তির লোকেশন ছিল দিলশাদ কলোনি। তড়িঘড়ি পুলিশ ছোটে সেখানে। দিলশাদ কলোনির ওই লোকেশনে একটি দোকানে গিয়ে হাজির হয় পুলিশ। কিন্তু, দোকান ফাঁকা থাকায় কাউকে পাওয়া যায়নি। এরপরই পুলিশ দিল্লির বুরারি থেকে দীনেশকে ধরতে সমর্থ হয়। জিজ্ঞাসাবাদে নাকি দীনেশ জানায় সম্প্রতি সে সিম কার্ডটি তাঁর এক আত্মীয়কে দিয়েছিল। সেই আত্মীয়কেও হেফাজতে নেওয়া হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সেই আত্মীয়ও জানায় এক খাবারের দোকানের সামনে একজন কেপমার তাঁর ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়। ওই খাবারের দোকানের মালিককেও পুলিশ জেরা করে। সেই মালিক জানায় দীনেশের আত্মীয় সত্যি কথাই বলছেন।

দিল্লি পুলিশ এখনও ফোনের সেই ব্যক্তিকে খুঁজে পায়নি। দিল্লি পুলিশ সম্ভাব্য সব সূত্র নিয়ে ওই ব্যক্তির খোঁজে নেমে পড়েছে। যদিও, ঘটনা পরম্পরা বিশ্লেষণ করে পুলিশের মনে হচ্ছে ফোনটি একটি ভুয়ো কলই ছিল। কেউ পুলিশের সঙ্গে মস্করা করেছে।