মেইন ম্যেনু

মোদীকে ৫০০-১০০০ নোট বাতিলের পরামর্শ দিয়েছিলেন ইনি!

৫০০-১০০০-এর নোট নিয়ে মোদীর সিদ্ধান্তে তোলপাড় দেশ। শুরু হয়েছে ব্যাপক তর্ক-বিতর্ক। কেউ বলছেন, হাজার সমস্যা। কেউ বলছেন ঠিক করেছেন মোদী। কিন্তু হঠাৎ কিভাবে এমন সিদ্ধান্ত নিলেন মোদী? কার পরামর্শে এমন অভিনব সিদ্ধান্ত?

এই সিদ্ধান্তের পিছনে রয়েছে একটা গল্প। সেই ব্যক্তির নাম অনিল বোকিল। পুনের এক বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ তিনি। কালো টাকা ঠেকাতে কি করা যায়, সেই নিয়ে মাত্র ৯ মিনিট বক্তৃতা দেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন এই ব্যক্তি। আর তাতেই বাজিমাৎ। মোদীর সামনে এই বিষয়ে একটি প্রেজেন্টেশন দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল তাঁকে। আর তাঁর কথায় যুক্তি খুঁজে পান মোদী। বোকিলকে ডেকে ঘণ্টা দুয়েকের আলোচনা চালান প্রধানমন্ত্রী। মনে করা হচ্ছে এই অনিল বোকিলের কথাতেই উৎসাহিত হয়ে এমন সিদ্ধান্ত নেন মোদী।

কি বলেছিলেন বোকিল?

১. আমদানি ছাড়া বাকি ৫৬টি ক্ষেত্রে কর আদায় বন্ধ রাখুন।

২. ১০০০, ৫০০ টাকার মত বড় নোট এমনকি ১০০ টাকাও পারলে অচল করে দিন।

৩. সব লেনদেন হওয়া উচিৎ ব্যাংক, চেক, ডিমান্ড ড্রাফটের মাধ্যমে বা অনলাইনে হওয়া উচিৎ।

৪. রেভিনিউ কালেকশনের জন্য সিঙ্গল ব্যাংকিং সিস্টেম রাখতে হবে।

৫. ভারতে মোট লেনদেনের ২০ শতাংশ হয় ব্যাংকের মাধ্যমে, বাকিটা হয় নগদে। যার কোনও হিসেব নেই।

৬. দেশের ৭৮ শতাংশ নাগরিক দিনে ২০ টাকা খরচ করে। তবু তাঁদের কাছে বড় নোট থাকে না।