মেইন ম্যেনু

যে কারণে ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি খাওয়া ভালো

cruciferous

ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজিগুলো ফাইবার, ভিটামিন এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে সমৃদ্ধ বলে স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। ফুলকপি, বাঁধাকপি, ব্রোকলি, সজিনা, ওলকপি, সরিষা শাক, মূলা, শালগম ইত্যাদি সবজিগুলো ক্রুসিফেরি পরিবারের অন্তর্গত। ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজিগুলো খাওয়ার কারণ জেনে নিই চলুন।

১। ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়

ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি ব্রোকলির ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার ক্ষমতা আছে। ২০ বছরের গবেষণার ফলাফলে জানা যায় যে, যারা প্রচুর পরিমাণে ব্রোকলি খান তাদের কোলন ক্যান্সার, ঘাড়ের ক্যান্সার, ফুসফুস ও মূত্রথলির ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি কমে। ২০০৮ সালের কারসিনোজেনেসিসের এক গবেষণায় জানা যায় যে, ব্রোকলির সালফোরাফেন প্রিক্যান্সারিয়াস ব্রেস্ট ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধিকে প্রতিহত করে এবং ধ্বংস করে ফেলতে পারে।

২। হাড়ের যত্ন নেয়

পাতাকপি কেলসিয়াম ও ভিটামিন কে এর চমৎকার উৎস। এই দুটি উপাদান হাড়কে শক্তিশালী করতে সাহায্য করে। আধা কাপ পাতা কপিতে ৪৭ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম এবং ৫৩১ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন কে থাকে।

৩। হৃদরোগের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে

ফুলকপি ভিটামিন সি এর চমৎকার উৎস যা একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং এটি হৃদরোগের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে। দৈনিক ভিটামিন সি এর চাহিদার এক তৃতীয়াংশ পূরণে সক্ষম ১ কাপ ফুলকপি। স্প্যানিশ এক গবেষণায় জানানো হয় যে, এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের মাত্রা কাঁচা অবস্থায় বেশি থাকে।

৪। ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি কমায়

বাঁধাকপিতে দ্রবণীয় ফাইবার থাকে। এটি পাকস্থলীতে জেলের মত গঠন তৈরি করে যা খাদ্য এবং এনজাইমের মধ্যে বাঁধার সৃষ্টি করে। যার ফলে খাবার আস্তে আস্তে হজম হয়। এটি ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। একটি গবেষণার ফলাফলে জানা যায় যে, যে নারীরা ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি বেশি খান তাদের ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি দুই-তৃতীয়াংশ কমে যায় যে নারীরা কম খান তাদের তুলনায়।

৫। প্রোটিনের উৎস

ব্রাসেলস স্প্রাউট কে মিনি-ক্যাবেজ বলা হয়। প্রোটিনের চমৎকার উৎস এটি। এর এক-তৃতীয়াংশ ক্যালোরিই প্রোটিন থেকে আসে।