মেইন ম্যেনু

যে রোগে আক্রান্ত হলে রোগীরা হঠাৎ নাচতে শুরু করে

1477797313

প্রকৃতির নিয়মেই মানুষ নানান সময় নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে। তবে তা চিকিৎসার মাধ্যমে নিরাময় সম্ভব হয়ে ওঠে।

পৃথিবীতে প্রচলিত প্রায় সব রোগ-ব্যাধীকেই চিকিৎসাবিদ্যা মতে সংজ্ঞায়িত করা যায়। এসব রোগের রয়েছে সুনির্দিষ্ট কিছু লক্ষণ এবং বেশিভাগ ক্ষেত্রেই রয়েছে সুনির্দিষ্ট প্রতিকারও।

কিন্তু পৃথিবীতে এমন কিছু বিরল রোগের সন্ধান পেয়েছেন চিকিৎসাবিদরা চিকিৎসাশাস্ত্রে যার কোনো সুনির্দিষ্ট ব্যাখ্যা নেই।

তবে চলুন জেনে নিই সেরকম কয়েকটি রোগ সম্পর্কে।

ড্যান্সিং ম্যানিয়া

ড্যান্সিং ম্যানিয়া বা ড্যান্স প্লেগ নামে পরিচিত এই রোগটি ১৪ এবং ১৭তম শতাব্দীর মধ্যবর্তী কোনো সময়ে ইউরোপে ঘটেছিল। এ রোগে আক্রান্ত রোগীরা হঠাৎ করে নাচতে শুরু করত এবং যতক্ষণ না তারা অবসাদগ্রস্ত হতো ততক্ষণ তারা নাচতেই থাকত। এতে অনেক সময় তাদের পাঁজর ভেঙ্গে যেত এবং অন্যান্য কার্ডিয়াক রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু পর্যন্ত হতো।

অ্যালিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড সিনড্রোম

এটি একটি স্নায়ুবিক রোগ যা মূলত তীর্যক উপলব্ধি দেয়। এ রোগে আক্রান্তদের কাছে যেকোনো বস্তু তার সত্যিকার আকৃতি থেকে ছোট বা বড় বলে মনে হয়। কিছু ক্ষেত্রে এমনকি তাদের নিজেদের দেহের আকারের ক্ষেত্রেও এমনটি ঘটে।

লেস-নাইহান সিনড্রোম

দেহকোষে এইচজিপিআরটি নামক জৈব রাসায়নিকের ঘাটতির কারণে এ রোগের উৎপত্তি হয়। এক্ষেত্রে রোগী নিজে নিজের হাতে, ঠোঁট কামড়াতে থাকে, মাথায় আঘাত করতে থাকে এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে স্ব-অঙ্গহানি ঘটায়।

মনচাউসেন সিনড্রোম বাই প্রক্সি

এটি এমন একটি মানসিক রোগ যেখানে সন্তানের বাবা-মায়েরা বিশেষ করে মায়েরা ইচ্ছাপূর্বকভাবে তাদের সন্তানকে অসুস্থ বানাতে চায় যাতে করে তারা অন্যদের কাছ থেকে সহানুভূতি ও মনোযোগ লাভ করতে পারেন।

কোটার্ডস সিনড্রোম

এটি একটি মানসিক অসুস্থতা যেখানে একজন মানুষ বিশ্বাসী করেন যে, সে ইতিমধ্যেই মারা গিয়েছেন এবং সম্ভবত পচতে শুরু করেছেন এবং তাদের অত্যাবশ্যক অঙ্গসমূহ বিলীন হয়ে গেছে।

অ্যালিয়েন হ্যান্ড সিনড্রোম

এটি খুবই বিপজ্জনক একটি সিনড্রোম, যেখানে একজন ব্যক্তি তার হাতের ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। এমনকি তখন হাত নিপুণভাবে কোনো বস্তু নিয়ে কাজ করতে পারে যদিও ব্যক্তিটি তা সম্পর্কে কিছুই জানেন না। এ ধরনের রোগীরা অনেক সময় একটি ফ্রাইং প্যানেও হাত দিয়ে ফেলে নিজের অজ্ঞাতে এবং প্রায়ই তখন অন্যের হাত দ্বারা তার হাত নিয়ন্ত্রণ করতে হয়।

প্রাডের-উইলি সিনড্রোম

এটি একটি সহজাত মানসিক ব্যাধি, যেখানে রোগী সব সময় ক্ষুধা অনুভব করেন। এর প্রভাবে সে ক্রমাগত খেতে পারে তার পেট পূর্ণ থাকার পরেও। এরা আক্ষরিক অর্থে মৃত্যু পর্যন্ত খেতেই থাকে।