মেইন ম্যেনু

যৌন মিলনের সঠিক সময় ভোর!

সঙ্গীর সঙ্গে মিলন স্বাভাবিক ব্যাপার! প্রত্যেকদিন কিংবা মাঝেমধ্যে সব মানুষই করে থাকে। কিন্তু বলতে পারেন যৌনমিলনের জন্যে উপযুক্ত সময় কখন হয়? ভাবছেন তো… এর আবার কোনো সময় হয় নাকি!

হ্যাঁ, যেমন সবকিছুর জন্যে আলাদা-আলাদা সময় থাকে, তেমনই সঙ্গিনীর সঙ্গেও মিলনের জন্যে সময় থাকবে না কেন? তাই এবার মিলনের জন্যে সুনির্দিষ্ট সময়টা জেনে নিন…।

হয়তো ভাবছেন মিলনের জন্যে সঠিক সময় রাত। কিন্তু এই ধারণাও আপনার ভুল কারণ, মিলনের জন্যে সঠিক সময় একেবারে ভোররাত। সময় ধরে ভোর ৫টা ৪৮ মিনিটে, যখন সাধারণত আপনি হাঁটাহাঁটি কিংবা যোগব্যায়াম শুরু করার পরিকল্পনা করেন।

ইতালির গবেষকদের মতে, ভোরে নারী এবং পুরুষ উভয়েরই টেস্টোস্টেরনের মাত্রা থাকে তুঙ্গে, যা যৌনমিলনের পূর্বশর্ত। সেক্স থেরাপিস্ট জেরাল্ডিন মায়ারসের মতে, ‘এই সময় উভয়ের কর্মশক্তির মাত্রাও থাকে সর্বোচ্চ। মানসিকভাবে, এই সময় জীবনের চাহিদাগুলো নিয়ে দুশ্চিন্তা কম থাকে বলে এটি মিলনের যথাযথ সময়।’

ভোর ৫টা ৪৮ মিনিটই সঙ্গমের সবচেয়ে উত্তম সময়, গবেষণা শেষে এমনটাই উপসংহারে এসেছেন গবেষকরা। তারা আরও জানাচ্ছেন, এই সময় ‘অর্গাজম’ হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি থাকে।

সম্প্রতি ব্রিটিশ মেডিকল জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় জানা গেছে, সূর্যের আলো মস্তিষ্কের হরমোন নিয়ন্ত্রণকারী অংশ ‘হাইপোথ্যালামাস’কে উদ্দীপ্ত করে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা বাড়ায়।

গবেষকরা বলেন, ‘আমাদের বডি-ক্লক ‘সার্কাডয়ান রাইমস’ নামক জৈবিক প্রক্রিয়া পরিচালনা করে যা আমাদের মানসিকতা এবং কর্মশক্তির মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণ করে।’ এমনকি একজন পুরুষ ঘুম থেকে জেগে ওঠার আগ থেকেই তার টেস্টোস্টেরনের মাত্রা তুঙ্গে থাকে। দিনের অন্যান্য সময়ের তুলনায় শতকরা ২৫ থেকে ৫০ ভাগ বেশি।

লন্ডনের সেইন্ট বার্থোলোমিওস হাসপাতালের নিউরোএন্ডোক্রিনোলজির অধ্যাপক অ্যাশলে গ্রোসম্যান বলেন, ‘এই বর্ধিত টেস্টোস্টেরন মাত্রার কারণে বেশিরভাগ পুরুষেরই সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার যৌনাঙ্গ উত্থিত অবস্থায় ঘুম ভাঙতে পারে।’

দিন গড়ানোর সঙ্গে ধীরভাবে পুরুষের শরীরে টেস্টোস্টেরন তৈরি হতে থাকবে। কারণ মাংসপেশী গঠন এবং শুক্রাণু তৈরিতেও এই হরমোন প্রয়োজন হয়।