মেইন ম্যেনু

রাজধানীতে কেরোসিন ঢেলে দুই সাংবাদিককে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

অবৈধ পলিথিন তৈরি নিয়ে প্রতিবেদন করতে গিয়ে প্রাণ হারানোর উপক্রম হয়েছিল দুই টিভি সাংবাদিকের। অল্পের জন্য তাদের জীবন রক্ষা পায়। পলিথিন তৈরির ছবি তোলার সময় সাংবাদিক ও ক্যামেরাম্যানের ওপর চড়াও হয় সংশ্লিষ্ট কারখানার লোকেরা। রবিবার বেলা ১২টার দিকে রাজধানীর চকবাজারের দেবিদাস ঘাট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

হামলার এক পর্যায়ে বেসরকারি চ্যানেল যমুনা টিভির রিপোর্টার শাকিল হাসান ও ক্যামেরাপারসন শাহীন আলমের ওপর কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। স্থানীয় অন্য লোকদের হস্তক্ষেপে শেষ পর্যন্ত তারা জীবন ফিরে পান।

ঘটনার পর চকবাজার থানায় হত্যাচেষ্টা মামলা করেছন সাংবাদিক শাকিল হাসান।

হামলায় গুরুতর আহ্ত শাকিল জানান,‘প্রতিবেদন তৈরির জন্য চকবাজারের ৩০ দেবিদাস ঘাটের একটি অবৈধ পলিথিন তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। পরে ক্যামেরাপারসন চিত্রধারণ করছিলেন। এরমধ্যে হঠাৎ করে কারখানার ভেতর থেকে জব্বার ও রহিম নামের দুইজন বের হয়ে এসে ছবি নেওয়া যাবে না বলে জানায়। পরে আমরা মূল রাস্তায় চলে আসি।

তিনি বলেন, আমরা রাস্তায় ওঠার পর আরও কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে জব্বার ও রহিম দৌঁড়ে এসে আমরাদের ওপর হামলা করে। আমাকে মাটিতে ফেলে পেটায় এবং ক্যামেরা ও মাইক্রোফোন ভাঙচুর করে।

‘পরে আমরা কোনোমতে উঠে দৌঁড়ে একটি মুদি দোকানে আশ্রয় নিলে সন্ত্রাসীরা সেখানেও গিয়ে হামলা চালায়। এক পর্যায়ে কেরোসিনের পুরো একটি টিন খুলে আমরা গায়ে ঢেলে দিয়ে জব্বার আগুন দেওয়ার জন্য ম্যাচ খোঁজে। পরে রাস্তায় লোকজন এসে উদ্ধার করে।’-বলেন শাকিল।

তিনি আরো জানান,জব্বার ও রহিমের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১০জনকে মামলায় আসামি করা হয়েছে।

লালবাগ বিভাগের উপকমিশনার মোহাম্মদ ইব্রাহীম খান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। পুলিশ হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।