মেইন ম্যেনু

রাজনীতিতে আসতে চাননি ইন্দিরা গান্ধী

রাজনীতিতে আসতে চাননি ইন্দিরা গান্ধী। এমনটাই দাবি করেছেন তার পুত্রবধূ এবং কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। দেশের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন কংগ্রেস নেত্রী। সেখানেই এমন মন্তব্য করেন তিনি।

সোনিয়া গান্ধী বলেছেন, ‘খুব কম মানুষই জানেন যে, রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার বিন্দুমাত্র ইচ্ছা ছিল না ইন্দিরা গান্ধীর। আর পাঁচটা নারীর মতো সাধারণ জীবন যাপন করতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু দেশ ও সাধারণ মানুষের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকেই তিনি রাজনীতির ময়দানে নামতে বাধ্য হয়েছিলেন।’

তার মতে, ‘ভারতের রাজনীতিতে ইন্দিরা গান্ধীর সব চেয়ে বড় অবদান ধর্মনিরপেক্ষতা। আজীবন পিছিয়ে পড়া, নিপীড়িত মানুষদের নিয়ে কাজ করেছেন তিনি। দেশবাসীর জন্য সর্বস্ব ত্যাগ করতে প্রস্তুত ছিলেন তিনি। এমনকি নিজের জীবনেরও পরোয়া করেননি কখনো। এখনকার রাজনীতিতে এমনটা দেখাই যায় না।’

শাশুড়ির সঙ্গে নিজের সম্পর্কের কথাও তুলে ধরেছেন কংগ্রেস সভানেত্রী। তিনি জানিয়েছেন, ‘ইন্দিরা গান্ধীর সম্পর্কে মানুষের ধারণা ভুল। বড্ড নরম মনের মানুষ ছিলেন তিনি। আর পাঁচটা শাশুড়ির মতো আমি যা যা খেতে ভালবাসি, তা মনে রাখতেন। অসম্ভব বুদ্ধিমতীও ছিলেন তিনি। নতুন সংস্কৃতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে আমাকে যথেষ্ট সময় দিয়েছিলেন। অত্যন্ত দায়িত্বশীল ছিলেন। পরিবারের সকলের জন্য চিঠি ও ছোট ছোট চিরকূট লিখে রাখতেন। আমাদের জীবনে কী ঘটছে না ঘটছে সবদিকে নজর ছিল তার। সঙ্গীত, লোকশিল্প এবং পরিবেশ সংক্রান্ত বিষয়ে তার বেশ আগ্রহ ছিল।’