মেইন ম্যেনু

রিজার্ভ চুরির অর্থ ফেরত দিতেই হবে : আইনমন্ত্রী

anisul

ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংকিং করপোরেশনকে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের চুরি যাওয়া অর্থ ফেরত দিতেই হবে বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে আইন মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে রাখা ১০ লাখ মার্কিন ডলারের মধ্যে দুই কোটি ডলার চলে যায় শ্রীলঙ্কায়। আর বাকি ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপাইনে। শ্রীলঙ্কা থেকে দুই কোটি ডলার ফেরত পাওয়া গেছে বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

অর্থ উদ্ধারে ব্যবস্থা নিতে ফিলিপাইন সফর শেষে সচিবালয়ে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করে সাংবাদিকদের আইনমন্ত্রী জানান, ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের চুরি হওয়া অর্থ আদায়ে ফিলিপাইন সরকার সব ধরণের ব্যবস্থা নেবে। ফিলিপাইনের সিনেটে এ ঘটনায় স্থগিত শুনানি আবার শুরু করার আশ্বাস দিয়েছে তারা।’

আইনমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আরসিবিসি (রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশন) যে দায় স্বীকার করেছে আমাদের সেই যুক্তি উল্লেখ করেছি। তারাও (ফিলিপাইন সরকার) বলেছেন, আরসিবিসি যেহেতু দায় স্বীকার করেছে তাই টাকাটা তাদের ফেরত দিতেই হবে। সেক্ষত্রে আমি বলবো ফিলিপাইন সরকার এই টাকা আদায়ের ব্যাপারে তাদের সদিচ্ছা প্রকাশ করেছে। তারা সব ধরণের ব্যবস্থা নেবে।’

চুরি যাওয়া অর্থ উদ্ধারের বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে গত ২৬ নভেম্বর আইনমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল ফিলিপাইন যায়। বুধবার (৩০ নভেম্বর) দলটি ফিরে আসার পর বৃহস্পতিবার এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে পূর্বনির্ধারিত বৈঠক স্থগিত হওয়ার বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘প্রেসিডেন্টের ব্যস্ততার কারণে বৈঠকটি স্থগিত হয়েছে। এর সঙ্গে চুরি যাওয়া অর্থ ফেরত না দেওয়ার কোনও সম্পর্ক নেই।’

চুরি যাওয়া বাকি অর্থ রিজাল ব্যাংক ফেরত দিতে রাজি না হওয়ার বিষয়টিকে ‘অনৈতিক’ ও ‘অযৌক্তিক’ বলেও উল্লেখ করেন আইনমন্ত্রী।