মেইন ম্যেনু

রোনালদোর হ্যাটট্রিকে বিধ্বস্ত অ্যাটলেটিকো

ronaldo320161120093716

রোনালদোর দিনে প্রতিপক্ষ দলের যে কিছুই করার থাকে না, তা টের পেলো রিয়ালের নগর প্রতিবেশী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। চলতি মৌসুমে রিয়ালের হয়ে নিজেকে খুঁজতে থাকা রোনালদোর অসাধারণ হ্যাটট্রিকে অ্যাটলেটিকোকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে জিদানের শিষ্যরা। আর এ জয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান আরও মজবুত করলো রোনালদো-বেলরা।

লা-লিগার শেষ ছয় ম্যাচে অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে কোনো জয় ছিল না রিয়ালের। এমন সমীকরণ নিয়ে নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে ম্যাচের শুরু থেকেই প্রতিপক্ষ শিবিরের ওপর প্রাধান্য বিস্তার করে খেলতে থাকে রোনালদো-বেলরা। ম্যাচের ১১ মিনিটে গোলের সুযোগও পায় রিয়াল। তবে একাদশ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারতো রিয়াল। ছয় গজ দূর থেকে রোনালদোর জোরালো হেড অসাধারণ নৈপুণ্যে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক।

তবে ম্যাচের ২৩ মিনিটে ২৫ গজ দূর থেকে দুর্দান্ত ফ্রি-কিকে দলকে লিড এনে দেন রোনালদো। ফলে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় রোনালদোরা। বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করে অ্যাটলেটিকো। ম্যাচের ৪৯ মিনিটে গোলমুখে গ্রিজমানের বাড়ানো বলে টোকা দেওয়ার মতো কেউ ছিল না।

ম্যাচের ৭১ মিনিটে ডিফেন্ডার সাভিচ ডি বক্সে বল বিপদমুক্ত করতে না পারায় রোনালদোকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় রিয়াল। আর তা থেকে গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রোনালদো। ছয় মিনিট পরেই হ্যাটট্রিক পূরণ করেন রোনালদো। বাঁ-দিক থেকে গ্যারেথ বেলের দারুণ এক পাসে ছয় গজ বক্সের বাইরে থেকে শুধু একটা টোকার দরকার ছিল, কোনো ভুল হয়নি পর্তুগাল অধিনায়কের। আর এ হ্যাটট্রিকের মধ্য দিয়ে রিয়াল কিংবদন্তি ডি স্টেফেনোকে ছাড়িয়ে ডার্বি ম্যাচে রিয়ালের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়লেন এই তারকা।

বাকি সময় আর গোল না হলে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে রিয়াল। এ জয়ে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থানে রয়েছে জিদানের দল। এদিকে দিনের অপর ম্যাচে মালাগার সঙ্গে ঘরের মাঠে গোলশূন্য ড্র করে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে বার্সেলোনা।