মেইন ম্যেনু

‘রোহিঙ্গা নির্মূলের চেষ্টা চালাচ্ছে মিয়ানমার’

myanmar20161013133749-1

জাতিগত সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদেরকে নির্মূলের চেষ্টা করছে মিয়ানমার। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের প্রধান জন ম্যাকইসিক বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ মন্তব্য করেছেন।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের এই প্রধান বলেছেন, রাখাইন রাজ্যে দেশটির সশস্ত্র বাহিনী রোহিঙ্গাদেরকে হত্যা করছে। নির্যাতনের মুখে অনেকেই প্রতিবেশি বাংলাদেশে পালিয়ে যাচ্ছেন।

গত ৯ অক্টোবর সশস্ত্র একদল দুর্বৃত্ত সীমান্ত এলাকার একাধিক পুলিশ চেক পোস্টে হামলা চালিয়ে ৯ জনকে হত্যার পর অস্ত্র নিয়ে পালিয়ে যায়। মুসে ও কুটকাই শহরের সেনা চৌকি, পুলিশ স্টেশন ও একটি ব্যবসা কেন্দ্রে ওই হামলায় ৯ জন নিহত হয়। নিহতদের মধ্যে এক সেনা, তিন পুলিশ, স্থানীয় এক নিরাপত্তা কর্মী ও তিন বেসামরিক নাগরিক ছিল।

পরে হামলার প্রতিশোধ নিতে ওই এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনী পাঠানো হয়। তবে ওই এলাকায় সেনাবাহিনীর সহিংসতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে দেশটির সরকার।

মিয়ানমারের কর্মকর্তারা বলছেন, উত্তরাঞ্চলের রাখাইনে রোহিঙ্গারা নিজেদের বাড়ি-ঘরে অাগুন দিচ্ছে। তবে দেশটির কর্মকর্তাদের এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। মিয়ানমার সেনাবাহিনী ওই এলাকায় সাংবাদিক ও ত্রাণকর্মীদের প্রবেশে বাধা দিচ্ছে।

মিয়ানমারে ১০ লাখ রোহিঙ্গা রয়েছে; যাদেরকে দেশটির বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা বাংলাদেশি অভৈধ অভিবাসী মনে করে। এদিকে, বাংলাদেশের সরকারি নীতি অনুযায়ী অবৈধ অনুপ্রবেশ নিষিদ্ধ। এরপরও শিবিরে হাজার হাজার শরণার্থীকে আশ্রয়ের তথ্য নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ ছাড়া আরো কয়েক হাজার শরণার্থী সীমান্তে জমায়েত হয়েছে।

এ সমস্যার সমাধান করার জন্য মিয়ানমারের ভেতরের মূল কারণের ওপর গুরুত্বারোপ করা প্রয়োজন বলে বিবিসিকে জানিয়েছেন জন ম্যাকইসিক।