মেইন ম্যেনু

লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবিতে ১০০ শরণার্থী নিখোঁজ

লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবে প্রায় ১শ’ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী বা শরণার্থী নিখোঁজ হয়েছেন। দেশটির নৌবাহিনী এই তথ্য জানিয়েছে।

বিবিসি বলছে, নৌকাটিতে ১২৬ জন যাত্রী ছিলেন। তাদের অধিকাংশই আফ্রিকার নাগরিক।

বুধবার সকালে এই যাত্রীরা লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির পূর্বাঞ্চলীয় গারাবুলি থেকে নৌকায় যাত্রা শুরু করেন।

ওইদিনের পর উপকূলরক্ষীরা একটি উদ্ধারের সহায়তা চাওয়ার সংকেত পান। তারা ২৯ জনকে জীবিত উদ্ধার করেন। কিন্তু বাকি অজ্ঞাত সংখ্যক নিখোঁজ।

উদ্ধার পাওয়া যাত্রীরা জানিয়েছেন, প্লাস্টিকের তৈরি নৌকাটি ফেটে গিয়ে পানিতে তলিয়ে যায়।

নৌবাহিনীর মুখপাত্র আইয়ুব গাসিম রয়টার্সকে বলেন, “অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করার কারণে নৌকাটির একটি অংশ ফেটে গিয়ে পানি উঠতে শুরু করে।”

তিনি আরো বলেন, “৯৭ জন অবৈধ অভিবাসনপ্রত্যাশী ও শরণার্থী এখনো নিখোঁজ কিংবা তলিয়ে গেছেন।”

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর বুধবার জানিয়েছে, ২০১৬ সালে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে অন্ততপক্ষে ৩,৮০০ মানুষ মৃত্যুবরণ করেছে নয়তো নিখোঁজ হয়েছে। এক্ষেত্রে এটি সবচে প্রাণঘাতী বছর।

চলতি বছর প্রায় ৩ লাখ ৩০ হাজার মানুষ ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়েছে।

উন্নত জীবনের আশায় মূলত আফ্রিকা ও যুদ্ধবিক্ষুব্ধ অন্যান্য দেশের মানুষেরা অবৈধভাবে সমুদ্র পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার চেষ্টা করে।