মেইন ম্যেনু

শতকের পরই তামিমের বিদায়

মধ্যাহ্ন ভোজন থেকে ফিরেই হাফসেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন মুমিনুল হক। ক্যারিয়ারের ১০তম টেস্ট হাফসেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন ৭২ বলে। অপর দিকে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরির অপেক্ষায় ছিলেন তামিম। মঈন আলীর ৪০তম ওভারে পর পর দুটি চার মেরেই কাঙ্ক্ষিত সেই ঘরোয়া সেঞ্চুরি পূরণ করেন তিনি। এটি তার অষ্টম টেস্ট সেঞ্চুরি। তবে এরপরের ওভারেই ফিরে যেতে হয় তামিমকে। রশিদ লতিফের বলে লেগ বিফোর হন। কুমার ধর্মসেনা আউট দিলেও তামিম ইকবাল রিভিউ নেন। কিন্তু ব্যর্থ সেই রিভিউতে এলবিডব্লু হয়েই বিদায় নেন ১০৪ রান করা তামিম। বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১৭১ রান। তবে মুমিনুল ক্রিজে আছেন ৬০ রানে।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এর আগেও দুটি সেঞ্চুরি পেয়েছেন তামিম ইকবাল। যদিও এর একটিও ঘরের মাঠে ছিল না। ২০১০ সালে চট্টগ্রামে ৮৬ এবং মিরপুরে ৮৫ রানের ইনিংস ছিল ইংলিশদের বিপক্ষে।

এর আগে অবশ্য প্রথম সেশনটি ছিল বাংলাদেশরই। এই সেশনে মুমিনুল-তামিম দ্বিতীয় উইকেটে করেন ১১৭ রানের জুটি।

যদিও এই সেশনে দিনের শুরুতে ফিরে গেছেন ওপেনার ইমরুল কায়েস (১)। তৃতীয় ওভারে ওকসের বলে কাট করতে গিয়ে পয়েন্টে ডাকেটের হাতে তালুবন্দী হন বাঁহাতি এই ওপেনার। আর এরপরেই জুটি গড়ে স্থিতি আনেন তামিম ও মুমিনুল। অর্ধশত পূরণ করেন তামিম।

তবে ২৫.১ ওভারে আবারও ঘটেছে রিভিউ নেওয়ার ঘটনা। তামিমের ব্যাটে বল লেগেছে ভেবে আবেদন করে বসে ইংল্যান্ড। জবাবে ধর্মসেনা আঙুল তুলে দেন। পাল্টা তামিম রিভিউ নিলে দেখা যায় বল ব্যাটেই লাগেনি। একই ওভারে আরও একটি ঘটনা ঘটে। ২৫.৩ ওভারে স্টোকসের লাফিয়ে ওঠা বল ঠিকমতো ব্যাটে লাগাতে পারেননি তামিম। বল গিয়ে লাগে তামিমের বুকে। টিভি স্ক্রিনে দেখা যায় বলটি সজোরে আঘাত করে তামিমের বুকে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে চিকিৎসা নিয়ে কোনও ঝামেলা ছাড়াই খেলা শুরু করেন তামিম।
এর আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। এই টেস্ট সিরিজে প্রথমবার টস জিতলেন মুশফিকুর রহিম।

চট্টগ্রাম টেস্টের একাদশ থেকে একটিমাত্র পরিবর্তন হয়েছে বাংলাদেশ দলে। পেসার শফিউল ইসলামের বদলে সুযোগ পেয়েছেন অফস্পিনার শুভাগত হোম। বাংলাদেশ শুভাগতসহ চারজন স্পিনার নিয়ে মাঠে নামছে।

ইতোমধ্যে প্রথম টেস্ট জিতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে ইংল্যান্ড। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া ম্যাচটি তাই দুই দলের জন্য সমান গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে ইংলিশ দল দুটি পরিবর্তন এনেছে ইংল্যান্ড। প্রথম টেস্টে খেলা স্পিনার গ্যারেথ ব্যাটির স্থানে দলে এসেছেন নবীন বাঁহাতি স্পিনার জাফর আনসারি ও পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডের জায়গায় দলে ঢুকেছেন স্টিভেন ফিন।