মেইন ম্যেনু

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অ্যাডহক কমিটি বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিট

হাইকোর্ট,

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচালনায় অ্যাডহক কমিটির বিধান সংবলিত আইনের ধারা বাতিল চেয়ে রিট করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। রবিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের করেন তিনি। রিটে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অ্যাডহক কমিটি সংক্রান্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রেগুলেশন ২০০৯ এর ৩৯ ধারা কেন বাতিল করা হবে না, এই মর্মে রুল জারির প্রার্থনা করা হয়েছে। পাশাপাশি ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, আইডিয়াল ও উইলস এই তিনটি স্কুলের গভর্নিং বডি গঠনে ৩০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার আরজিও আবেদনে জানানো হয়েছে।

এতে শিক্ষাসচিব, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান, ঢাকা জেলা প্রশাসক এবং ভিকারুননিসা নূন, আইডিয়াল ও উইলস স্কুল কর্তৃপক্ষকে বিবাদী করা হয়েছে। রিট আবেদনে বলা হয়, অ্যাডহক ও বিশেষ উভয় ধরনের কমিটিই অনির্বাচিত। বিশেষ ধরনের কমিটি গঠনসংক্রান্ত ধারা ৫০ ধারা হাইকোর্টে বাতিল হয়েছে। ঠিক তদ্রুপভাবে অ্যাডহক কমিটি সংক্রান্ত ধারা ৩৯ ও বাতিল হবে। এই দুটি ধারাই সংবিধানের ১১ অনুচ্ছেদ ও ইহার প্রস্তাবনার সঙ্গে সাংঘর্ষিক।

সংবিধানের ১১ অনুচ্ছেদে নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের কার্যকর অংশগ্রহণ নিশ্চিত হইবে এবং প্রস্তাবনায় আইনের শাসন ও গণতন্ত্রের গুরুত্ব দিয়েছে। এছাড়া মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধ্যাদেশ ১৯৬১ এর ৩৯ (২) ও ১৮ (৩) এর সঙ্গেও এডহক কমিটি গঠনের বিধান সাংঘর্ষিক। কারণ কারণ ৩৯ (২) ধারা অনুযায়ী বোর্ড বা সরকারকে নিয়মিত গভর্নিং বডি করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে।

সেই অনুযায়ী ২০০৯ সালের আইনে অ্যাডহক কমিটি গঠনসংক্রান্ত বিধানটি যুক্ত করা হয়। কিন্তু এই অ্যাডহক কমিটির ৩৯ ধারা ১৯৬১ সালের ৩৯ (২) ধারা এর সঙ্গে সাংঘর্ষিক। ওই ধারা অনুযায়ী অ্যাডহক কমিটি গঠনের জন্য সংযোজন করার ক্ষমতা বোর্ড বা সরকারকে দেয়নি। তাই এই ধারাটি বাতিল চাওয়া হয়েছে বলে জানান আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।