মেইন ম্যেনু

“শ্রীমঙ্গলে নাসিরনগরসহ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত”

unnamed

সৌরভ আদিত্য, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ– সারাদেশের ন্যায় আজ ০৮ নম্ভেবর মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলায় সারাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর নির্যাতন, নিপীড়ন, হিন্দুদের মূর্ত্তী ভাঙ্গচুর, বাড়ীঘরে অগ্নি সংযোগ ও হিন্দু কিশোরীকে ধর্ষন এইসব ঘটনার প্রতিবাদে ও এর সঙ্গে জড়িতদের বিচারের দাবিতে বুধবার সকাল ১০টা থেকে শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা চ্বত্তরের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয় বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, তরুন সনাতনী সংঘ(টি,এস,এস) শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখা, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ শ্রীমঙ্গল পৌর শাখাসহ অন্তত ১৫টি সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

মানবন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহন কারী সকল সংগঠনেরর নেতাকর্মী ও সনাতন ধর্মালম্বীরা ভিক্ষোবে পেটে পড়ে রাজপথ প্রকম্পিত করে।

এই সময় বক্তরা বাংলাদেশে বিভিন্ন সময় হিন্দুদের উপর নির্যাতন ও হিন্দুদের মন্দির, মূর্ত্তী ভাঙ্গার ঘটনা তুলে ধরে বলেন বাংলাদেশ একটি গনতান্ত্রিক রাষ্ট্র এই দেশে সব ধর্মের মানুষের বাসবাসের অধিকার রয়েছে, তাহলে কেন সব সময় এই দেশের হিন্দুদের নির্যাতন, নিপীড়ন ও হিন্দুদের ধর্মীয় উপসানালয় মন্দিরের হামলা ও মূর্ত্তী ভাঙ্গা হয়??? এবং সাম্প্রতিক সময়ে ব্রাহ্মনবাড়ীয়া জেলার নাসির নগর উপজেলায় ঘটে যাওয়া ঘটনা নিয়ে মৎস ও পশু সম্পদ মন্ত্রী জনাব ছাইদুল হকের কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রদানের তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং ছাইদ্যুল হকের মন্ত্রীত বাতিল ও দল থেকে বহিষ্কারের দাবি জানান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট। সেই সাথে প্রশাসনের দায়িত্ব সস্পর্কেও প্রশ্ন তুলেন বক্তরা। বক্তরা আরো বলেন আমরা বিশ্বাস করি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ একটি অসাম্প্রদায়িক দল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশ নেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা খুবদ্রুত দোষীদেরকে আইনের আওতায় এনে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে দৌষিদের বিরুদ্ধে কার্যকরি ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

উল্লেখ্য গত ৩০ অক্টোবর ব্রাহ্মনবাড়ীয়া জেলার নাসির নগর উপজেলার ফেসবুকে রসরাজ দাস নামের এক হিন্দু যুবকের ইসলাম অবমাননার অভিযোগ এনে নাসিরনগরে ১৫টি মন্দির এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের ৩০০ শতাধিক বাড়ি ঘরে ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নি সংযোগ করে। শুক্রবার রসরাজ ফেসবুকে পোস্ট করলে ওই দিনই তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর তাকে ৫ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত। যদিও রসরাজ তার একাউন্ট হ্যাক হয়েছে বলে দাবি করেছেন।

নাসিরনগরের ইউএনও মোয়াজ্জেম ও ওসি আবদুল কাদেরের উপস্থিতিতে একটি সমাবেশে ‘উসকানিমূলক’ বক্তব্যের পর ওই হামলা হয়।

মন্দিরসহ বাড়িঘরে হামলার পাঁচ দিনের মাথায় পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যেই শুক্রবার নাসিরনগরে হিন্দুদের বাড়িঘরে আবারও আগুন দেওয়া হয়েছে