মেইন ম্যেনু

সাবধান! এই ৩টি খাবার খেলেই হতে পারে ক্যানসার

ক্যানসার এমন একটি মারণ রোগ, যা অনেক সময়ে ধরা পড়ে না প্রাথমিক অবস্থায়। ফলত, শেষ পর্যায়ে গিয়ে ভুগতে হয় অনেককেই।
স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন হতে কে না চায়। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায়, অভ্যাশের বশে চেষ্টা করলেও সচেতন হয়ে ওঠা হয় না আর। আর এর ফলেই বাড়ে বিপদ। ক্যানসার এমন একটি মারণ রোগ, যা অনেক সময় ধরা পড়ে না প্রাথমিক অবস্থায়। ফলত, শেষ পর্যায়ে গিয়ে ভুগতে হয় অনেককেই। ঠিক কী কী কারণে ক্যানসার হয়, তা এখনও পর্যন্ত নিশ্চিত করে বলা না গেলেও, এর কিছ‍ু কারণ খুঁজে পেয়েছেন গবেষকরা। একটি গবেষণায় প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, কিছু খাবার সম্পর্কে আমাদের সতর্ক থাকা প্রয়োজন। এগুলিই অজান্তে ডেকে আনতে পারে ক্যানসার। যেমন,

রেড মিট
লাল মাংস তথা পাঁঠা, গরু বা শুয়োরের মাংস অনেকেরই প্রিয়। তবে রেড মিট বেশি খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। এর থেকে হতে পারে প্রাণঘাতী ক্যানসারও, এমনটাই দাবি গবেষকদের। তাই গবেষকরা মনে করছেন, অধিক পরিমাণে লাল মাংস খাওয়ার অভ্যাস থাকলে তা অবিলম্বে সেই অভ্যাস ত্যাগ করাই শ্রেয়। একটি সমীক্ষা অনুযায়ী, লাল মাংসে এন-নিট্রোসোডিয়েথিলামিন নামে এক ধরনের রাসায়নিক পদার্থ থাকে। এ‌ পদার্থের মাত্র দশমিক ০০০০৭৫ শতাংশ গ্রাম-ই শরীরে ক্যানসার উৎপাদনের জন্য যথেষ্ট।

পরিশোধিত চিনি
পরিশোধিত চিনির ঝুঁকিও বিস্তর। এই চিনি স্থূলতার জন্য দায়ী। যুক্তরাজ্যে ৬০ শতাংশেরও বেশি মানুষ স্থূলতা বা অতিরিক্ত ওজন সমস্যায় ভুগছে। পরিশোধিত চিনি নানা ধরনের স্বাস্থ্যগত সমস্যা ছাড়াও ক্যানসার সেলের জন্ম দেয় শরীরে। এই চিনি থেকে তৈরি বিভিন্ন পানীয় শরীরের জন্য ক্ষতিকর। কৃত্রিম চিনি অনেক ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগী চিনির বিকল্প হিসেবে বেছে নেন। কিন্তু গবেষণায় দেখা যায়, এই কৃত্রিম চিনি তৈরিতে ব্যবহৃত হয় সোডা ও কফি সুইটেনার্স। বাস্তবিক অর্থে এই কৃত্রিম চিনি রক্তে সুগার নিয়ন্ত্রণেও প্রভাব ফেলে। এতে ডায়েবেটিস বৃদ্ধিসহ ক্যান্সারও হতে পারে।

প্রক্রিয়াজাত সাদা আটা
আটা শর্করা জাতীয় খাবার। এটি স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। কিন্তু প্রক্রিয়াকরণজাত সাদা আটা স্বাস্থ্যের জন্য মোটেই ভাল নয়। রিফাইন করার ফলে এই আটা তার সাধারণ পুষ্টিগুণাগুণ হারিয়ে ফেলে। আটার মিলগুলি এই আটা সংরক্ষণের জন্য বর্তমানে ক্লোরাইন গ্যাসে নামে একটি কেমিক্যাল ব্যবহার করছে, যা স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর।-এবেলা