মেইন ম্যেনু

সালমানের দেহরক্ষী শেরা গ্রেপ্তার

ঝামেলা মুম্বাইয়ের একটি পানশালায়। সেখানে বাদানুবাদের পর হয়েছে অভিযোগ। তবে লোকটি যখন সালমান খানের দীর্ঘদিনের দেহরক্ষী, বিষয়টি সেখানে মিটিয়ে ফেলার বদলে বাইরে গিয়ে অভিযোগকারীর কলার বোন (গলার নিচের হাড়) ভেঙে দিলেন তিনি। শুধু তাই নয়, তারপর পিস্তল বের করে শাসালেনও। এই ঘটনার পর ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে আজ বুধবার মুম্বাই পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে গুরমিত সিং ওরফে শেরা নামে পরিচিত এই দেহরক্ষীকে। ১৮ বছর ধরে তিনি সালমান খানের ব্যক্তিগত দেহরক্ষী হিসেবে কাজ করছেন।

মুম্বাইয়ের ডিএন নগরের পুলিশ শেরাকে এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গ্রেপ্তার করেছে। এরই মধ্যে ভারতীয় দণ্ডবিধি ৩২৬ এবং ৩২৩ ধারার অধীনে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

শেরার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়, গত মঙ্গলবার রাতে ভিলে পার্লের একটি পাবে আহত ব্যক্তির সঙ্গে শেরা এবং অন্যান্য দেহরক্ষীদের দেখা হয়। এ সময় ঘটনাক্রমে তাঁদের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়। রাত আড়াইটার দিকে তাঁরা পানশালা থেকে বেরিয়ে গেলে শেরা এবং অন্য দুজন দেহরক্ষী মিলে অভিযোগকারীকে মারধর করেন এবং পিস্তল দেখিয়ে হুমকি দেন। এ সময় ওই ব্যক্তির কলার বোন ভেঙে যায়।

এ বিষয়ে অবশ্য শেরাকে আগেই জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল। তিনি এই পুরো ঘটনা অস্বীকার করে বলেছিলেন যে পুরো বিষয়টিই ছিল স্রেফ ‘উত্তপ্ত বাদানুবাদ’ মাত্র।

সালমান খানের খুবই কাছের মানুষ এই শেরা। সালমান তাঁর একটি সিনেমাও উৎসর্গ করেছিলেন এই শেরাকে।