মেইন ম্যেনু

সুন্দরগঞ্জে নাশকতার মামলা আসামীরা বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে

নুরুল আলম ডাকুয়া, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে নাশকতা মামলার আসামীরা এখন ছিনতাই, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধ প্রবনতামুলক কর্মকা-ে জড়িয়ে পড়ছে।

জানা যায়, গত রবিবার অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে চালকসহ ব্যবসায়ীকে মারপিটের পর দিন-দুপুরেই ভটভটিসহ নগদ ৬০ হাজার টাকা ছিনতাই করেছে নাশকতা মামলার আসামীরা। প্রত্যক্ষদর্শীসহ স্থানীয়রা জানান, রবিবার দুপুরে উপজেলার কঞ্চিবাড়ি ইউনিয়নের কঞ্চিবাড়ি গ্রামের শান্তির মোড় নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটিয়েছে দূর্বৃত্তরা। এ সময় ভটভটিযোগে চালক শান্তিরাম ইউনিয়নের শান্তিরাম গ্রামের মিল্লাত মিয়াসহ ব্যবসায়ী ছাপড়হাটী ইউনিয়নের উত্তর মরুয়াদহ গ্রামের আলামিন মিয়া হরিপুর খেয়াঘাট থেকে ধুবনী বাজার হয়ে নিজবাড়ির দিকে ফিরছিলেন। উক্ত স্থানে পৌঁছা মাত্রাই কঞ্চিবাড়ি গ্রামের নুরুল হকের পুত্র শাহ্ রশিদুল ৫/৬ জনের একটি দল নিয়ে ভটভটিটি থামিয়ে চালক ও ব্যবসায়ীকে বেধরক মারপিট করে ব্যবসায়ীর নগদ ৬০ হাজার টাকাসহ ভটভটিটি ছিনতাই করে নিয়ে যায়। দিন দুপুরে এ ঘটনা ঘটলেও উপস্থিত লোকজন কোন বাঁধা দেয়ার সাহস পায়নি। বর্তমানে আন্তর্জাতিক মানবতা বিরোধী অপরাধ ট্রাইব্যুনালের গ্রেফতারী পরোয়ানা ভুক্ত আসামী আত্মগোপনে থাকা সাবেক এমপি মাওলানা আব্দুল আজিজের দোষর রশিদুল ওরফে রশিদুল জামাতি ও তার লোকজন প্রতিনিয়তই ছিনতাই, ডাকাতিসহ নানান বে-পরোয়া তা-ব চালিয়ে গেলেও এলাকার কেউই তাদের বিরুদ্ধে মুখ খোলা সাহস পায় না। দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ কালেও এই রশিদুল মাওলানা আজিজের সহযোগি হিসেবেই তার সাথেই ছিল।

এব্যাপারে কঞ্চিবাড়ি ইউপি’র সংশ্লিষ্ট ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুল খালেক বলেন- ঘটনার পর বিকালে ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আলতাব হোসেন ও দওফাদার নজরুল ইসলামসহ গিয়ে বাইরে থেকে দেখি ৫/৬ জন লোকসহ রশিদুল তার বাড়ির ভিতরে একটি ভটভটি খুলতে ছিল। বাড়ির বাইরে থেকে রশিদুলকে ডাক দিলে সে বাড়িতে নেই বলে একজন মহিলা জানালে আমরা ফিরে আসি। ব্যবসায়ী ও ভটভটি চালক বলেন- সকালে গরু বেচা-কেনার জন্য ৩ জন ব্যবসায়ী চিলমারী হাট যাবার জন্য হরিপুর খেয়াঘাটে গরু নিয়ে পৌঁছার পর। অপর ২ ব্যবসায়ী নৌকাযোগে চিলমারী হাট গেলেও আলামিন ও চালক মিল্লাত বাড়ি ফিরার সময় এ ঘটনা ঘটিয়েছে দূর্বৃত্তরা।
উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারী থেকে এর পরবর্তীতে উপজেলায় ঘটে যাওয়া নাশকতা সমুহের অর্ধ ডজনেরও বেশি সংখ্যক মামলায় গ্রেফাতারি পরোয়ানা থাকা সত্বেও প্রশাসন ও জন সম্মুখেই রশিদুল ও তার লোকজন বে-পরোয়াভাবে ডাকাতি, ছিনতাইয়ের ঘটনা একের পর এক-একটি করে ঘটিয়েই যাচ্ছে। তার এই বে-পরোয়া তা-ব রোধে প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন এলাকাবাসী। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।