মেইন ম্যেনু

সুন্দরবনে বাঘ জরিপ শুরু নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে

Tiger-120160529134529

ক্যামেরা ট্র্যাপিং পদ্ধতি ব্যবহার করে চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে সুন্দরবনে বাঘ জরিপ শুরু হচ্ছে।

সুন্দরবন পশ্চিমাঞ্চলের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. সায়ীদ আলী জানান, এই জরিপ তিন মাসব্যাপী চলবে। এতে সুন্দরবনে তিনশ’ ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। খবর বাসস।

বন বিভাগ সূত্র জানায়, বেঙ্গল টাইগার কনজারভেশন এ্যাকটিভিটি প্রজেক্টের অধীনে ওয়াশিংটন ভিত্তিক কনজারভেশন বায়োলজি ইনস্টিটিউশনের দুই আমেরিকান বিশেষজ্ঞ এই জরিপ মনিটরিং করবেন।

সুন্দরবন সার্কেলের বন রক্ষক জহির উদ্দিন আহমেদ এই প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন।

নীল কমল, কাচিখালী ও সাতক্ষীরা রেঞ্জে বাঘ শাবক পাওয়া যাওয়ায় বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে বলে দাবি বন বিভাগের।
জহির উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আমরা ক্যামেরা ট্র্যাপিংয়ের মাধ্যমে প্রত্যেকটি বাঘ, বাঘিনী ও বাঘ শাবকের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করব।’

তিনি জানান, নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে প্রথমে সাতক্ষীরায় এই জরিপ শুরু হবে এবং কমপক্ষে তিন মাস চলবে। এছাড়া আগামী বছর মাঝামাঝিতে খুলনা ও বাগেরহাট জেলায় বাঘের জরিপ শুরু হবে।
বাঘ জরিপ-২০১৫ অনুযায়ী, বাংলাদেশের সুন্দরবন অংশে ২০১৫ সালে মাত্র ১০৬টি বাঘ পাওয়া যায়। ২০০৪ সালে এখানে বাঘের সংখ্যা ছিল ৪৪০টি।

বন বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, অবৈধভাবে বাঘ শিকার ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণে গত ১৫ বছরে সুন্দরবনে কমপক্ষে ৫০টি বাঘ মারা গেছে।