মেইন ম্যেনু

হঠাৎ দেবে গেল বেড়ি বাঁধসহ বিশাল এলাকা

sharonkhola_30723_1479138503

বাগেরহাটের শরণখোলায় চার একর জমি ও সিসি ব্লকের কাজ করা ৩০০ মিটার বেড়িবাঁধ এলাকা হঠাৎ দেবে গিয়ে বলেশ্বর নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।

সোমবার বিকাল ৫টার দিকে ৩৫/১ পোল্ডারের বগী নতুন গেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

রাতে জোয়ারের পানি প্রবেশ করে ওই এলাকার বিস্তীর্ণ আমন ধানের ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। এ ঘটনায় ওই এলাকার মানুষের মাঝে নতুন করে আতংক বিরাজ করছে।

এদিকে, নির্মাণাধীন বেড়িবাঁধে নদী শাসন ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী জানায়, সোমবার সন্ধ্যার আগে বেড়িবাঁধ হঠাৎ করে দেবে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলের কাছাকাছি নির্মাণাধীন বেড়িবাঁধের কাজের দায়িত্বে থাকা চায়না ঠিকাদারি কোম্পানির সহকারী প্রকৌশলী মোজাহিদুল ইসলামসহ অন্যরা এসে এলাকাবাসীকে নিয়ে এসকেভেটর মেশিন দিয়ে রিং বাঁধ দেয়ার কাজ শুরু করে। রাতে জোয়ারের পানি লোকালয়ে প্রবেশ করতে না পারে এজন্য এ পদক্ষেপ। রাত সাড়ে ৭টার দিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত একাজ অব্যাহত ছিল।

ওই এলাকার আবদুর রাজ্জাক, রেবা বেগম, রুস্তুম হাওলাদারসহ অন্যরা জানান, এ ঘটনার পর রাতে জোয়ারে পানি নিয়ে তারা আতংকে আছেন। এ ব্যপারে তারা দ্রুত পদক্ষেপ নিতে প্রশাসনের প্রতি দাবি জানিয়েছেন।

বগী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শায়সের আলী জানান, শরণখোলার দেড় লাখ মানুষের জন্য নির্মানাধীন বেড়িবাঁধে নদী শাসনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। নদী শাসনের ব্যবস্থা না করে নির্মানাধীণ বেড়িবাঁধের স্থায়িত্ব নিয়ে শংকা রয়েছে।

নির্মানাধীন বেড়িবাঁধের কনসাল্টিং প্রতিষ্ঠানের সুপারভিশন প্রকৌশলী শ্যামল কুমার দত্ত জানান, চারটি এসকেভেটর দিয়ে রিং বাঁধ তৈরির কাজ চলছে। জোয়ারের পানি যাতে প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য রাতের মধ্যেই রিং বাঁধ তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে।