মেইন ম্যেনু

১৪৬ বছরের পুরোনো চিঠি কীভাবে ফ্রান্স থেকে অস্ট্রেলিয়ায় গেল জানলে অবাক হবেন

cefc176c66d8dcfb2d555905178030dc-11

প্রায় ১৪৬ বছর আগে মায়ের কাছে চিঠি লিখেছিলেন শার্ল মেনিয়েখ নামে এক ফরাসি। চিঠির গন্তব্য ছিল উত্তর ফ্রান্সের নরম্যান্ডি। সেই চিঠির খোঁজ পাওয়া গেল সুদূর অস্ট্রেলিয়ায়। কীভাবে চিঠিবাহী বেলুনটি অত দূর গেল, তা ভেবে কূল পাচ্ছেন না কেউ। খবর এএফপির।

১৮৭০ সালে ফ্রাঙ্কো-প্রুসিয়ান যুদ্ধের সময় মায়ের কাছে বেলুনে করে চিঠিটি পাঠান শার্ল মেনিয়েখ। ২০০১ সাল থেকে এটি অস্ট্রেলিয়ার ন্যাশনাল আর্কাইভের (মহাফেজখানা) ব্রিসবেন কার্যালয়ে রক্ষিত ছিল। সম্প্রতি তা ন্যাশনাল আর্কাইভে পাঠানো হয়েছে।

ন্যাশনাল আর্কাইভের সহকারী মহাপরিচালক লুইস ডয়লি গতকাল মঙ্গলবার এ খবরটি জানিয়ে বলেন, এই চিঠিটি ফরাসি পরিবারটির পরিণতি সম্পর্কে জানার সুযোগ করে দিয়েছে। তখন রাজধানী প্যারিস থেকে ফ্রান্সের সব এলাকায় যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম ছিল বেলুন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে রাতের বেলায় এসব বেলুন উড়িয়ে দেওয়া হতো। এগুলোতে ভরে দেওয়া হতো শত শত চিঠি।

অস্ট্রেলিয়া ও ফ্রান্সের জাতীয় আর্কাইভের এক যৌথ প্রকল্পের অংশ হিসেবে এই চিঠির বিষয়টি সম্প্রতি জনসমক্ষে আসে। পুরো চিঠিতে মায়ের প্রতি সন্তানের আবেগের উত্তাপ। ছেলে শার্ল উদ্বিগ্ন মাকে আশ্বস্ত করে বলছেন, তিনি ভালো আছেন।

ফ্রাঙ্কো-প্রুসিয়ান যুদ্ধের সময় জার্মান বাহিনী প্যারিসকে চার মাসের বেশি সময় দখলে রেখেছিল।

লুইস ডয়লি বলেন, ‘চিঠিটি সাবেক কুইন্সল্যান্ড পোস্ট ও টেলিগ্রাফ মিউজিয়াম থেকে ২০০১ সালে ন্যাশনাল আর্কাইভের ব্রিসবেন কার্যালয়ে পাঠানো হয়। এটি লেখা হয়েছিল ১৮৭০ সালের ৬ ডিসেম্বর। আমরা জানি না কী করে এটি অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছাল। তবে এই চিঠির মাধ্যমে আমরা অনেক কিছু জানতে পারব।’