মেইন ম্যেনু

৩টি খাবার বর্জন করুন, আজীবন সুস্থ থাকুন !

সুস্থ থাকতে চেষ্টার কোনো ত্রুটি করি না আমরা। অনেকে পছন্দের খাবারগুলো বাদ দিয়ে দেন। এ জন্য সব মজার খাবার বাদ দিতে হবে, এমন নয়। এক্ষেত্রে আপনার বিভিন্ন খাবারের গুণাগুণ বিচার করতে হবে। কিছু খাবার রয়েছে, যা গড়পড়তা হিসেবে ক্ষতিকর বলে মনে করা হলেও অল্প খেলে ক্ষতি করে না।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিকস সেন্টার ফর ফাংশনাল মেডিসিনের পরিচালক ড. মার্ক হাইম্যান বলেছেন, আমাদের কখনোই মানুষকে ফ্যাট খাবার বাদ দিতে বলা উচিত নয়। তবে তার বদলে কিছু খাবারের ফ্যাট বাদ দেয়া যেতে পারে। খাবারের ক্ষতিকর ফ্যাট বদলে উপকারী ফ্যাট গ্রহণ করতে পারেন।

মিষ্টি ফ্যাট সবচেয়ে বিপজ্জনক :
মিষ্টি ফ্যাটকে সবচেয়ে বিপজ্জনক খাবারের অন্যতম হিসেবে অভিহিত করেন ড. মার্ক হাইম্যান। তিনি বলেন, আপনি যদি মিষ্টির সঙ্গে ফ্যাট গ্রহণ করেন তাহলে তা একদিক দিয়ে আপনার দেহে বাড়তি চিনি আনবে অন্যদিকে ফ্যাটও আনবে। অর্থাৎ রিফাইন্ড কার্বহাইড্রেটস ও ফ্যাট, যা দেহে ইনসুলিন বৃদ্ধি করবে এবং আপনার দেহের ওজন বাড়াবে। বিভিন্ন গবেষণাতেও এ বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে।

বর্জন করুন পরিশোধিত কার্বহাইড্রেট :
সাদা ধবধবে ময়দা দিয়ে তৈরি খাবার থেকে সাবধান থাকতে বলছেন বিশেষজ্ঞরা। এ ক্ষেত্রে পাস্তা, সাদা পাউরুটি, ময়দার রুটি ইত্যাদি বাদ দিয়ে লাল আটার তৈরি রুটি, পাউরুটি ও অন্যান্য সামগ্রী খেতে হবে। এ ধরনের খাবারগুলোতে ভিটামিন ও ফাইবার থাকে। এছাড়া এগুলো সহজে হজমও হয়।

লাল মাংসের বিকল্প খুঁজুন :
বিভিন্ন স্তন্যপায়ী প্রাণীর মাংস যেমন গরু, ছাগল, ভেড়া ইত্যাদি খুবই ক্ষতিকর। তাই ড. মার্ক হাইম্যান বলেন, লাল মাংস বাদ দিয়ে দিন। আপনার খাবারের ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ যেন উদ্ভিজ্জ থেকে আসে। এক্ষেত্রে মাছ হতে পারে একটি আদর্শ বিকল্প। পাশাপাশি আপনি প্রচুর বাদাম, বিভিন্ন ধরনের বীজ, অলিভ অয়েল, নারকেল তেল ইত্যাদি খেতে পারেন। খাবারে যেন ওমেগা থ্রি থাকে সেদিকে খেয়াল রাখুন। এটি দেহের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়।